স্ত্রী হত্যার দেড় যুগ পর স্বামীর যাবজ্জীবন

0

স্ত্রীকে হত্যার আঠারো বছর পর স্বামী মো. আনোয়ার উল্লাহকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ৫০ হাজার টাকা জরিমানার রায় দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই বছর বৃদ্ধি পাবে কারাভোগের মেয়াদ।

বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রামের তৃতীয় অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী আব্দুল মজিদের আদালত এই রায় দিয়েছেন।

আনোয়ার উল্লাহ ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর থানার ভুজপুর ইউনিয়নের কালাকুম গ্রামের বাসিন্দা। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে হাজির ছিলেন এবং রায় শেষে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, খুন হওয়ার সময় স্ত্রী লাইলী বেগম আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। স্ত্রীকে রেখে আনোয়ার দ্বিতীয় বিয়ে করতে চেয়েছিলেন। স্ত্রী সম্মত না হওয়ায় ২০০০ সালের ২২ এপ্রিল রাতে নিজ ঘরে শ্বাসরোধ করে খুন করা হয় লাইলীকে। ২৩ এপ্রিল লাইলীর বাবা কামাল উল্যাহ বাদি হয়ে দ-বিধির ৩০২ ধারায় ফটিকছড়ি থানায় মামলা দায়ের করেন।

জানা যায়, লাইলীকে খুনের পর তার লাশের পাশে একটি বিষের বোতল রেখে বলা হয়েছিল বিষপানে তার মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু ২০০০ সালের ২১ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগ থেকে দেওয়া ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, লাইলীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এই মামলায় ২০০১ সালের ২৭ জানুয়ারি আনোয়ার উল্লাহকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। একই বছর ৮ জুন অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর পর ১২ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করে রাষ্ট্রপক্ষ। অপরদিকে আসামির পক্ষে আদালতে সাফাই সাক্ষ্য দেন পাঁচজন।

জয়নিউজ/এফএম/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...