চিড়িয়াখানায় গেল মায়াহরিণটি

0

সকালে দোকান খুলে বসে আছেন মেহেদি হাসান। সাতসকালে ক্রেতা না থাকায় অলস সময় পার করছিলেন তিনি। হঠাৎ দৌড়ে এসে দোকানে ঢুকে পড়ল এক নতুন অতিথি। তাকে দেখে চোখ তার ছানাবড়া। তিনি বুঝলেন, এটাতো মায়াহরিণ! ডেকে নিলেন তার সহোদরকে। তারপর দু’জনে মিলে ধরলেন নতুন অতিথিটিকে। ভেবে পাচ্ছিলেন না, কি করবেন। হঠাৎ তার মনে পড়ল ৯৯৯ নম্বরের কথা। কল করলেন দ্রুত। পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এসে হাজির হলেন। মায়াহরিণটি পেল তার নিরাপদ ঠিকানা।

এমনই এক ঘটনা ঘটেছে নগরের আকবরশাহে। সকাল সাড়ে ৬টার দিকে আল্লার দান কুলিং কর্নারে পথ হারিয়ে ঢুকে পড়ে মায়াহরিণটি।

মেহেদি হাসান জানান, সকালে হঠাৎ দোকানে মায়াহরিণটি ঢুকে পড়ে। হরিণটি আর বেরোনোর জায়গা পাচ্ছিল না। আমি ও আমার সহোদর টিপু সুলতান অনেক কষ্টে হরিণটিকে ধরেছি।

মেহেদি জানান, হরিণের খুরের আঘাতে আমার শরীরের কয়েক জায়গায় ছড়ে গেছে। হরিণটি টেবিলে ধাক্কা খেয়ে কিছুটা আঘাত পায়। পরে ৯৯৯-এ কল করলে পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা এসে মায়াহরিণটি নিয়ে যায়।

তিনি বলেন, আমার খুব আনন্দ হচ্ছে যে হরিণটি ফিরিয়ে দিতে পেরেছি।

উদ্ধার হওয়া মায়াহরিণটি চিড়িয়াখানায় হস্তান্তর করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

জয়নিউজ/পিডি/আরসি

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...