‘জলাবদ্ধতা নিরসনে জনসচেতনতার বিকল্প নেই’

0

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে (চসিক) ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোরশেদ আলম বলেছেন, জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি পেতে জনগণকে এগিয়ে আসতে হবে। জলাবদ্ধতা নিরসনে জনসচেতনতার বিকল্প নেই।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) নগরের জলাবদ্ধতা নিয়ে জয়নিউজকে একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, নগর কখনো হাঁটুপানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। আবার কখনো কোমরপানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। এরপরও জনগণের হিতাহিত জ্ঞানে কোনো পরিবর্তন নেই।

কিন্তু অদ্ভুত বিষয় আমি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে মাঠে-ময়দানে গিয়ে নিজে চোখে দেখলাম, অনেকে বড় ড্রেনগুলোকে ডাস্টবিন মনে করে অফিসে যাওয়ার সময় পলিথিন ফেলে যাচ্ছে। শিক্ষিত মানুষরা এর সঙ্গে জড়িত। আমরা মনে করতাম, সমাজের মূর্খরা এই ময়লা ফেলছে। আমাদের দেশে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীও এই জায়গা থেকে বাহির হতে পারছে না।

তিনি বলেন, আমাদের যতক্ষণ মনে হবে না এই দেশটা আমার। নগরটা আমার। এই নগর বাসযোগ্য করা আমাদের সকলের দায়িত্ব। এককভাবে চসিক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন অথবা চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক) চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নয়। যারা জনপ্রতিনিধি আছেন স্থানীয় কাউন্সিলর আছে তাদের দায়িত্ব দিয়ে বসে থাকলে হবে না। তাহলে কখনো জলাবদ্ধতা নিরসন হবে না। জলাবদ্ধতা নিরসনে জনগণের দায়িত্ব রয়েছে। জনগণ এগিয়ে আসলে জলাবদ্ধতা নিরসন হবে।

জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী চউক ও সেনাবাহিনীকে দায়িত্ব দিয়েছেন। আমি একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আহ্বান জানাব, প্রধানমন্ত্রী নগরের জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রায় দশ হাজার কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে। এই টাকা যেন কথা বলে।

জয়নিউজ/কাউছার/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...