‘অপশক্তিকে রোধ করতে হবে সাংস্কৃতিক বলয় দিয়ে’

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার বলেছেন, ‘যা কিছু অপশক্তি আছে তাকে আমরা রোধ করব সাংস্কৃতিক বলয় দিয়ে। সুন্দরের প্রতিষ্ঠা করতে হলে সুন্দর কিছু উচ্চারণ করতে হবে। সুন্দরকে মাথায় ধারণ করতে হবে।’

চবি আবৃত্তি মঞ্চ আয়োজিত আবৃত্তি উৎসবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

বুধবার (২৪ জুলাই) বেলা এগারোটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সামনে থেকে একটি শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হয় সংগঠনটির নবম আবৃত্তি উৎসব। পরে অনুষদের মিলনায়তনে উৎসবের মূল আয়োজন শুরু হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য আরও বলেন, প্রদীপ্ত বিশ্বাসে পৃথিবীতে পথ চলা উচিত। সুকুমারবৃত্তি ছাড়া অপশক্তিকে মোকাবেলা করতে পারব না।

তিনি বলেন, সাংস্কৃতিক কর্মীরা মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে এক হয়ে লড়েছে সংস্কৃতিচর্চার মাধ্যমে। তাঁদের কণ্ঠে বিজয়ের গান, নতুন জীবনের গান আমাদের অনুপ্রেরিত করে।

চবি আবৃত্তি মঞ্চের উপদেষ্টা মাছুম আহমেদের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন কলা ও মানববিদ্যা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সেকান্দর চৌধুরী। আমন্ত্রিত অতিথি ছিলেন কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়। এসময় সেলিনা হোসেনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে সেলিনা হোসেন বলেন, কবিতার অনেক পঙ্কতি, অনেক অনেক অংশ আমাদের হৃদয়ে সঞ্চারিত হয়ে থাকে যার মধ্য দিয়ে আমরা শাশ্বত সুন্দরকে লালন করি। আমাদের নান্দনিক, সাংস্কৃতিক বোধকে পরিশুদ্ধ করার একটি দিক হচ্ছে কবিতা। যারা কবিতা চর্চা করে, আবৃত্তি চর্চা করে তাদের মধ্যে অশুদ্ধতা নাই।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি মঞ্চের সভাপতি মাসুম বিল্লাহ আরিফ। অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন বিশেষ অতিথি অধ্যাপক ড. সেকান্দর চৌধুরী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. আনোয়ারা বেগম, সংগীত বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সুকান্ত ভট্টাচার্য, আবৃত্তি শিল্পী ফারুক তাহের।

জয়নিউজ/নবাব/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...