সবুজে সেজেছে লালদিঘী

0

নগরের লালদিঘীর মাঠে এখন সবুজের সমারোহ। এই মাঠে চলছে বৃক্ষমেলা। ‘শিক্ষায় বন প্রতিবেশ, আধুনিক বাংলাদেশ’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের উদ্যোগে গত ১৩ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে এ বৃক্ষমেলা।

বনজ, ফলজ, ওষুধি গাছ ছাড়াও মেলায় এসেছে বর্ণিল সব ফুলের চারা। গাছের টানে মেলায় ভিড় করছেন বিভিন্ন বয়সের নগরের বৃক্ষপ্রেমী। মেলায় কেউ এসেছেন চারা কিনতে, আবার কেউবা শুধু ঘুরেঘুরে দেখছেন। একসাথে এত গাছ দেখে খুশি মেলায় আসা দর্শনার্থীরা। ক্রেতাদের বেশি চাহিদা আম, লিচু, লেবু, কাঁঠাল গাছের চারার প্রতি। মেলায় প্রতিদিন বিভিন্ন প্রজাতির লাখ টাকার চারা বিক্রি হচ্ছে বলে জানান মেলা কমিটির সদসরা। মেলায় প্রায় ৪০ লাখ টাকার বিভিন্ন প্রজাতির অর্ধ লক্ষাধিক চারা বিক্রয় হয়েছে বলেও জানান তারা।

মহসিন কলেজের শিক্ষার্থী সুমা ইসলাম জয়নিউজকে বলেন, গাছের প্রতি আলাদা ভালোবাসা থেকেই এখানে এসেছি। এত গাছ একসঙ্গে দেখতেও ভালো লাগছে। মেহেদি গাছ ও দুই তিনটা ফুলের চারা গাছ কিনেছি। গাছ লাগিয়ে পরিবেশ রক্ষা করার কথাও বলেন এই শিক্ষার্থী।

কোন গাছ নেই মেলায়! সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকার বনসাই থেকে শুরু করে সর্বনিম্ন ২০ টাকার তুলসি গাছ। দেশীয় কলাগাছ, আম, জাম, লিচু, করমচা থেকে শুরু করে মালটা ড্রাগন ছাড়াও বিক্রি হচ্ছে হাজারো বনজ, ফলজ ও ওষুধি গাছ।

চাকরিজীবী সাইফ আজাদ জয়নিউজকে বলেন, এখন অনেকেই বাসার ছাদে বাগান করছে। এই ধরনের মেলা সবসময় হলে আমাদের উপকার হয়। বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কিনতে পারি। এ মেলার মাধ্যমে শহরকে ‘গ্রিন সিটি ক্লিন সিটি’ করা যাবে।

মেলায় ৫০টি স্টল বসেছে। যদিও স্টল দেওয়া নার্সারির মালিকরা বলছেন, মেলার সময় আরো বাড়ালে ভালো হত।

মেলায় বাহাদুর নার্সারির স্বত্বাধিকারী আবুল হাসান জয়নিউজকে বলেন, প্রতিদিন মেলায় লাখ টাকার চারা বিক্রি হচ্ছে। তবে তার দোকানে বেশি বিক্রি হচ্ছে ফলজ গাছের চারা। এছাড়া কলাগাছের চারাও বেশ বিক্রি হয়েছে বলে জানান তিনি। মেলা কমিটির কাছে সময় বাড়ানোর অনুরোধ করেন এই নার্সারি মালিক।

চট্টগ্রাম উত্তর বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. রেজাউল আলম জয়নিউজকে বলেন, মেলায় নগরবাসীর দারুণ সাড়া পাওয়া গেছে। প্রতিদিন অনেকে আসছেন গাছ কিনতে। আমরা মেলা নির্ধারিত সময়ের চেয়ে দুইদিন বেশি স্থায়ী করেছি। শুরুর দিকে প্রবল বৃষ্টির কারণে ক্রেতা উপস্থিতি কম হলেও, শেষের দিকে এসে প্রচুর গাছের চারা বিক্রি হয়েছে।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের সহায়তায় বন বিভাগ এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর যৌথভাবে বৃক্ষরোপণ অভিযান, বনজ ও ফলজ বৃক্ষমেলা-১৯ বাস্তবায়ন করছে।

জয়নিউজ/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...