এবার ১৭ মাসের শিশু ধর্ষিত

0

মিরসরাইয়ের ইছাখালী ইউনিয়নে ১৭ মাসের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে মো. শিহাব উদ্দিন (৩৪) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশ।

শুক্রবার (৯ আগস্ট) রাতে নোয়াখালী জেলা সদর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এর আগে ঘটনার আটদিন পর (৯ আগস্ট) শিহাব উদ্দিনকে আসামি করে শিশুটির বাবা জোরারগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন।

গ্রেপ্তারকৃত শিহাব উদ্দিন নোয়াখালী জেলা সদরের ওয়াজিল্ল্যার ছেলে। তিনি ইছাখালী ইউনিয়নের আবুরহাট বাজারের আশরাফ উদ্দিন জামে মসজিদে মুয়াজ্জিনের দায়িত্বে ছিলেন।

শিশুটির মা জয়নিউজকে বলেন, গত শুক্রবার দুপুরে আমি গোসল করতে যাই। তখন পাশের বাড়ির ভাড়াটিয়া শিহাব উদ্দিন চকলেটের লোভ দেখিয়ে আমার মেয়েকে বাসায় নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পর সে চিৎকার করে কান্না শুরু করলে আমার পাশের বাসার মেয়ে তাকে নিয়ে আসে। আমি গোসল শেষ করে বাসায় এসে দেখি তার প্যান্টে রক্ত। প্যান্ট খুলে দেখি তার যৌনাঙ্গ ক্ষত-বিক্ষত হয়ে আছে। পরে বিষয়টি আমার স্বামীকে জানাই।

শিশুটির বাবা জয়নিউজকে বলেন, আমরা গরিব মানুষ। ঘটনার পর স্থানীয় হোমিওপ্যাথিক ডাক্তার থেকে মেয়েকে চিকিৎসা করাই। টাকা-পয়সার অভাবে থানায় অভিযোগ করতে যাইনি। এলাকার মানুষ সালিশ ডেকে কোলাকুলি করে সমাধান করে দেন। কিন্তু মেয়ের অবস্থার অবনতি হলে মস্তাননগর হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক মামলা দায়ের করার পরামর্শ দেন। তাই আমি শুক্রবার বিকেলে জোরারগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছি। আমি প্রশাসনের কাছে এ ঘটনার ন্যায়বিচার দাবি করছি।

জোরারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইফতেখার হাসান জয়নিউজকে বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় শুক্রবার রাতে নোয়াখালী জেলা সদর থেকে শিহাবকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়।

তিনি আরো জানান, ভিকটিম শিশুটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আমরা আগামীকাল (রোববার) মেডিকেলে নিয়ে যাব। শিশুটি বর্তমানে তার মায়ের কাছে আছে।

জয়নিউজ/রিফাত/এমজেএইচ

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...