সবজির চাহিদা কম, জোগানও

0

ঈদের পর নিত্যপণ্যের বাজার এখনও জমে উঠেনি। বাজারে সবজিসহ সব পণ্যের চাহিদা ও যোগান দুটোই কম। এরপরও বাজারে বেড়েছে সবজি দাম। তবে চাহিদা কম থাকায় কমেছে মাংসের দাম।

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) নগরের কাজির দেউরি, রিয়াজউদ্দিন বাজার, চকবাজারসহ বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

আলুর কথা বাদ দিলে বাজারে  সব ধরনের সবজি পাওয়া যাচ্ছে ৪০ থেকে ৮০ টাকা কেজিতে। বেশি দামের সবজির মধ্যে রয়েছে বেগুন, বরবটি, করলা, ও শসা।

প্রতি কেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকায়, আলু ২৫ টাকা, করলা ৭০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, বরবটি ৮০ টাকা, কাকরল ৬০ টাকায়,  ঝিঙা ৫০ টাকা, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, শসা ৭০ টাকা এবং গাজর ৭০ টাকা।

প্রতি আঁটি লাউ শাক ২০ টাকা, লাল শাক ১৫ টাকা, পালং শাক ২০ টাকা, পুঁই শাক ১৫ টাকা এবং ডাটা শাক ২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

সবজি বিক্রেতা মামুন জয়নিউজকে বলেন, বাজারে ক্রেতা নেই। তাই সবজিও নেই। ক্রেতা না থাকলে সবজি এনে কি করবো। অল্প এনে অল্প বিক্রি করি।

এদিকে সব ধরনের মুরগির দাম কমেছে। বাজারে প্রতি কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৩০ টাকা, লেয়ার ১৯০ টাকা, কক ২৮০ টাকা এবং দেশি মুরগি ৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া গরুর মাংস ৫২৫ টাকায় এবং খাসির মাংস ৮০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

কাজির দেউড়ির মাংস ব্যবসায়ী মো. আলী জয়নিউজ বলেন, কোরবানির ঈদ হওয়ায় মাংসের চাহিদা কম। এজন্য মুরগির দাম কমেছে।

এদিকে প্রতি কেজি রুই মাছ ৩৫০ টাকা, কাতলা ৪০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৮০ টাকা, চিংড়ি ৭০০ টাকা, পাবদা ৭০০ টাকা, ইলিশ সাইজ ভেদে ৫০০ থেকে ১ হাজার টাকা এবং বোয়াল ৭০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

জয়নিউজ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...