ডোমিঙ্গোর চার লক্ষ্য

0

নির্ধারিত সময়ের পাঁচ মিনিটের মধ্যেই দুই কোচ নতুন কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো এবং চার্লস ল্যাঙ্গাভেল্টকে নিয়ে মিরপুরের সংবাদ সম্মেলনে হাজির দলের মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম। আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে প্রাণোবন্তই দেখা যায় ডোমিঙ্গো ও ল্যাঙ্গাভেল্টকে।

সংবাদ সম্মলেনে ডোমিঙ্গো জানালেন খেলোয়াড়দের সম্পর্কে ভালো ধারণা নেয়া এবং তাদের আস্থা অর্জনের দিকেই বেশি মনোযোগী তিনি।

ডোমিঙ্গো বলেন, ‘আমার প্রাথমিক লক্ষ্য হলো প্রথমত, খেলোয়াড়দের ভালোভাবে দেখা, তাদের সম্পর্কে ধারণা নেয়া, সবার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৈরি এবং খেলোয়াড়দের আস্থা অর্জন করা।’

তিনি যে এ প্রাথমিক লক্ষ্যপূরণে বিশেষ মনোযোগী তা বোঝা গেছে দলের সঙ্গে তার ক্যাম্পের প্রথম দিনেই। সংবাদ সম্মেলন শুরুর আগপর্যন্ত খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলে তাদের সম্পর্কে ধারণা নেয়ার ও বোঝার চেষ্টা করতে দেখা গিয়েছে ডোমিঙ্গোকে। যা আশা জাগাচ্ছে দেশের ক্রিকেট অনুরাগীদের।

ডোমিঙ্গো নিজেও অভিভূত বাংলাদেশে ক্রিকেটের আবেদন ও জনপ্রিয়তা দেখে। প্রায় ১৫ বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে এসেছিলেন ডোমিঙ্গো। তখন থেকে এ দেশের ক্রিকেট ক্রেজ সম্পর্কে অবহিত রয়েছেন এ প্রোটিয়া কোচ।

তিনি বলেন, ‘আমি ২০০৪ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচ হয়ে এসেছিলাম। তখনই ধারণা পেয়েছিলাম এ দেশে ক্রিকেটের কদর কত বেশি। এছাড়া গতকালও বিমানবন্দরে নেমে এত এত ক্যামেরার ফ্ল্যাশ, আজ সম্মেলনে প্রায় শতাধিক সাংবাদিক দেখেই বোঝা যায় এখানে ক্রিকেটের আবেদন অনেক বেশি।’

এসময় বাংলাদেশের বিশ্বকাপ পারফরম্যান্স পর্যালোচনা করতে বলা হলে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘আমি তো ভেবেছিলাম বাংলাদেশ সপ্তম হয়েছে। তবে সাত বা আটের মধ্যে তেমন ফারাক নেই। বিশ্বকাপে বাংলাদেশ অনেক ভালো ক্রিকেট খেলেছে। অন্তত সাত বা আটে থাকার চেয়ে অনেক ভালো খেলেছে তারা। বিশ্বকাপে ওদের অনেক ইতিবাচক বিষয় আমি খেয়াল করেছি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়টা পেলেই অবস্থান আরও ভালো হতো।’

জয়নিউজ/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...