সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে তোলাই ছিল শ্রীকৃষ্ণের মূল দর্শন: মেয়র নাছির

0

সমাজ থেকে অন্যায়-অবিচার, অত্যাচার, নির্যাতন, জুলুম ও হানাহানি দূর করে মানুষে মানুষে অকৃত্রিম ভালোবাসা ও সম্প্রীতির বন্ধন গড়ে তোলাই ছিল শ্রীকৃষ্ণের মূল দর্শন।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) সকাল ১০টায় জে এম সেন হল প্রাঙ্গণে মহাশোভাযাত্রা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

সিটি মেয়র বলেন, দেশের সকল ধর্মের অনুসারীরা পারস্পরিক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য বজায় রেখে নিজ নিজ ধর্ম পালন করে আসছে। আমাদের সকলকে সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এই ঐতিহ্য অক্ষুন্ন রাখতে হবে। সব ধর্মের মূলবাণী মানবকল্যাণ। ধর্মকে ব্যবহার করে বা ধর্মের অপব্যাখ্যা করে কেউ যাতে সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে সে ব্যাপারে সকলকে সজাগ থাকতে হবে।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মাহবুবর রহমান বলেন, প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার বছর আগে অত্যাচারী ও দুর্জনের বিরুদ্ধে শান্তিপ্রিয় সাধুজনের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে মহাবতার শ্রীকৃষ্ণ আবির্ভূত হন। ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য তাঁর আবির্ভাব অত্যাবশ্যকীয় ছিল।

পরে মহাশোভাযাত্রা উদ্বোধন করেন ভারতের সহকারী হাই কমিশনার অনিন্দ্য ব্যানার্জী।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের মহানগরের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, দক্ষিণ জেলা সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন, জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দে, সাবেক সভাপতি দেবাশীষ পালিত, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. চন্দন তালুকদার, কার্যকরী সভাপতি ডা. মনোতোষ ধর প্রমুখ

দুপুর ১২টায় মাতৃসম্মেলন উদ্বোধন করেন রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী শক্তিনাথানন্দ মহারাজ।

এছাড়া ৩টায় রয়েছে ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ৫টায় সনাতন ধর্মসম্মেলনে মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বলন করবেন ঋষিধামের মোহন্ত শ্রীমৎ স্বামী সুদর্শনানন্দ পুরী মহারাজ। অনুষ্ঠানের উদ্বোধক থাকবেন কৈবল্যধামের মোহন্ত মহারাজ শ্রীমৎ অশোক কুমার চট্টোপাধ্যায়। অতিথি হিসেবে থাকবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ সালাম।
রাতে ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মাষ্টমী পূজা ও ষোড়শপ্রহর নাম সংকীর্তনের শুভ অধিবাস, ২৪ আগস্ট ভোর হতে মহানাম সংকীর্তন শুরু এবং ২৬ আগস্ট ব্রাহ্মমুহুর্তে নাম সংকীর্তনের সমাপন। প্রতিদিন দুপুর ও রাতে বিতরণ করা হবে মহাপ্রসাদ।

জয়নিউজ/হিমেল/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...