কলেরা ফিরে আসার আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

0

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে নানা ধরনের চর্মরোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর ধারাবাহিকতায় কলেরার মতো রোগ আবারো ফিরে আসতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) নগরের একটি হোটেলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের (চমেক) চর্ম ও যৌন রোগ বিভাগ আয়োজিত এক সেমিনারে এ আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

চমেক হাসপাতালের চর্ম ও যৌনরোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. মোহাম্মদ রফিকুল মাওলার সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. একেএম রফিক আহমদ।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ডার্মাটোলজিক্যাল সোসাইটির প্রেসিডেন্ট ডা. একিএম সিরাজুল ইসলাম। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডা. দেব প্রতীম বডুয়া।

মূল প্রবন্ধে ডা. দেব প্রতীম বড়ুয়া বলেন, বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে ত্বকের ক্যান্সার ও চর্মরোগ বাড়ছে।

এসব রোগের বিস্তার ঠেকাতে জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় সম্মিলিত বৈশ্বিক প্রচেষ্টার উপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি।

প্রধান অতিথি ড. রফিক আহমদ বলেন, আমাদের অসচেতনতার কারণে সর্বক্ষেত্রে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব কাঙ্ক্ষিত মাত্রার চেয়েও দ্রুত স্পষ্ট হচ্ছে। যদিও বাংলাদেশ জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় করণীয় নির্ধারণে বিশ্বের অন্য দেশের তুলনায় খানিকটা এগিয়ে আছে। তারপরও অন্যদেশের তুলনায় আমাদের ঝুঁকি অনেক বেশি।

তিনি বলেন, নগরায়ন এবং শিল্পায়নের সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশের দিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ডা. সিরাজুল ইসলাম বলেন, পরিবেশ পরিবর্তনের কারণে সবার আগে ত্বকের ক্ষতি পরিলক্ষিত হয়। যার কারণে নানা ধরনের চর্মরোগ ক্রমেই বেড়ে চলছে।

তিনি বলেন, একসময় ধারণা করা হতো বৃহত্তর চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকার ভুগর্ভস্থ পানিতে আর্সেনিক নেই। কিন্তু এই ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। সীতাকুণ্ডের পাহাড়ি এলাকায় আর্সেনিক পাওয়া গেছে। সেখানকার আশি শতাংশ নলকূপের পানিতে আর্সেনিক আছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন ডা. শাহ আলম, সাইফুল্লাহ খান, ডা. নিশিথ রঞ্জন দে, ডা. অঞ্জনা চক্রবর্তী, পরিবেশ দপ্তরের পরিচালক ডা. আজাদুর রহমান মল্লিক, ডা. আবুল কাশেম চৌধুরী, ডা. মিজানুর রহমান, ডা. মহুয়া মজুমদার, ডা. আরিফুল আমিন, ডা. বর্ণালী বড়ুয়া, ডা. জুনায়েদ মাহমুদ খান, ডা. রোকসানা হক, ডা. জাহিদুল হাসান, ডা. মোহাম্মদ ইসমাইল হোসেন চৌধুরী।

জয়নিউজ/কাউছার/এমজেএইচ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...