সাদার্ন ইউনিভার্সিটিতে ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ে নেটওয়ার্ক বিষয়ক সেমিনার

0

সাদার্ন ইউনিভার্সিটির পুরকৌশল বিভাগের উদ্যোগে ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ে নেটওয়ার্ক অ্যান্ড পার্টিসিপেশন অব বাংলাদেশ বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সম্প্রতি ইউনিভার্সিটির স্থায়ী ক্যাম্পাস বায়েজিদ আরেফিন নগরে বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

উপ-উপাচার্য ও বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার এম আলী আশরাফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ও আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের সাবেক মহাপরিচালক ও দোহাজারী-কক্সবাজার ডুয়েল গেজ রেলপথ নির্মাণের পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের টিম লিডার ইঞ্জিনিয়ার এ কে এম রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুরকৌশল বিভাগের উপদেষ্টা প্রফেসর ইঞ্জিনিয়ার মোজাম্মেল হক।

ইঞ্জিনিয়ার রেজাউল করিম বলেন, চট্টগ্রাম-কক্সবাজার-ঘুমধুম রেললাইন নির্মাণের কাজ এগিয়ে যাচ্ছে এবং এটি ট্রান্স-এশিয়ান রেলওয়ে নেটওর্য়াকের সঙ্গে যুক্ত হবে।
এসময় তিনি বাংলাদেশের রেলপথ সেক্টরের উন্নয়ন সম্পর্কে তাঁর জ্ঞান ও অর্জিত অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার রেললাইন প্রকল্পের বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেন। মূল প্রকল্পের অধীনে রেললাইনটি মিটারগেজ হওয়ার কথা থাকলেও বর্তমানে চীন-মায়ানমার রেল নেটওয়ার্কের সাথে বাংলাদেশের সংযোগ স্থাপনের গুরুত্ব বিবেচনা করে রেললাইনটি ব্রডগেজে পরিবর্তন করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ প্রকল্পের মাধ্যমে পর্যটন শহর কক্সবাজার রেল নেটওয়ার্কের আওতায় আসবে। এতে পর্যটন শিল্পের প্রসারের সাথে সাথে ব্যবসা-বাণিজ্যও বিস্তৃতি ঘটবে। এই প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে উল্লিখিত অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বিশেষ করে ট্রান্স-এশিয়ান রেলওয়ে করিডরের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন হবে। এতে আঞ্চলিক, উপ-আঞ্চলিক রেল যোগাযোগের ক্ষেত্রে সিল্ক রোড (চীন-মিয়ানমার-বাংলাদেশ) ও ট্রান্স-এশিয়ান রেলওয়ে বিদ্যমান রেলপথটি সেতুবন্ধ হিসেবে কাজ করবে।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...