বঙ্গবন্ধুকন্যাকে নিয়ে বোধনের ব্যতিক্রমী আয়োজন

0

নগরের থিয়েটার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে ব্যতিক্রমী এক আয়োজন করেছে বোধন আবৃত্তি পরিষদ। ‘শান্তি ও সম্প্রীতি’ শিরোনামে এ আয়োজন করা হয় গত ১৩ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায়।

বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়েই মূলত এ আয়োজন করা হয়। যেখানে তুলে ধরা হয় শেখ হাসিনাকে নিয়ে লেখা ৭১টি কবিতা। প্রফেসর আহমেদ রেজা সম্পাদিত এবং আনিস মুহম্মদের সংকলন ও অনুবাদ Peace and Harmony গ্রন্থ থেকে এসব কবিতা আবৃত্তি করা হয়।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা আমাদের যে আলোর পথ দেখাচ্ছেন সেখান থেকে আমাদের দেশ এগিয়ে যাবে, আমরা সেই আলোয় উদ্ভাসিত হয়ে এগিয়ে যাব।

বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রামের আহ্বায়ক আব্দুল হালিম দোভাষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার, সাংস্কৃতিক সচিব কবি আজিজুর রহমান আজিজ।

প্রধান আলোচক ছিলেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর যত গুণ তা সবচাইতে বেশি শেখ হাসিনাকে প্রভাবিত করেছে। পার্বত্য শান্তি চুক্তি, রাজাকারদের ফাঁসি নিশ্চিত, স্যাটেলাইট পাঠানো, পদ্মা সেতু, কর্ণফুলীতে টানেল, জিডিপি প্রবৃদ্ধি এশিয়ায় কেউ এত তাড়াতাড়ি পারেনি। এটি সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কারণে।

অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের কণ্ঠসৈনিক বুলবুল মহলানবীশ, মুক্তিযুদ্ধ একাডেমি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. আবুল আজাদ, মমতার প্রধান নির্বাহী লায়ন রফিক আহমদ এবং গ্রন্থের অনুবাদক আনিস মুহম্মদ।

আবৃত্তিশিল্পী প্রবীর পালের উপস্থাপনায় স্বাগত বক্তব্য দেন বোধনের স্থায়ী পরিষদ সদস্য প্রশান্ত চক্রবর্তী। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বোধনের প্রতিষ্ঠাতা ও সদস্য সচিব সুভাষ বরণ চক্রবতী।

বঙ্গবন্ধুকন্যাকে নিয়ে বোধনের পরিবেশনা

কবিতা পাঠ শুরু হয় আবৃত্তিশিল্পী মাইনুল আজম চৌধুরীর নির্দেশনায় বৃন্দ আবৃত্তি ‘ভূমিকন্যা’ দিয়ে। একক আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী পারভেজ চৌধুরী, জাভেদ হোসেন, প্রণব চোধুরী, রাজিউর রহমান বিতান, পিউ সরকার, জিকো সরকার, আফরোজা নীরু, হোসনে আরা তারিন, অসীম দাশ, সেহেলি হাসনাত, নিশি চোধুরী, রীমা দাশ, ইতু সাহা, সুতপা মজুমদার, মোহিনী সঙ্গীতা সিংহ, পৃথুলা চৌধুরী, মৃত্তিকা চক্রবর্তী, তারমিন পুষ্পা ও প্রজ্ঞা পারমিতা।

শিশুদের বৃন্দ পরিবেশনা উপস্থিত দর্শকদের দারুণ আনন্দ দেয়

হোসনে আরা তারিন ও ইতু সাহার গ্রন্থনা এবং নির্দেশনায় বোধনের শিশু বিভাগের বৃন্দ পরিবেশনা ‘বঙ্গবন্ধুর কন্যা অনন্যা’ দিয়ে ব্যতিক্রমী এ আয়োজনের পর্দা নামে।

জয়নিউজ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...