ভালো শুরুর পরেও আফগানদের সংগ্রহ ১৩৮

0

ভারো শুরুর পরেও টাইগার বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে মাত্র ১৩৮ রান সংগ্রহ করেছে আফাগানিস্তান। এখন বাংলাদেশকে জিততে হলে ১৩৯ রান করতে হবে।

এর আগে ত্রিদেশীয় টি-টেয়েন্টি সিরিজের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টসে হেরে ব্যাট করে আফগানিস্তান।

ফিরলেন জানাত
দলীয় ১১৪ রানের মাথায় সপ্তত উইকেটের পতন ঘটে আফগান শিবিরে। এবার শফিউলের বলে মুস্তাফিজকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরলেন করিম জানাত (৩)।

সাইফের ইয়র্কারে বোল্ড নাজিবুল্লাহ
ডানহাতি পেসার সাইফ উদ্দিনের ইয়র্কারে কিছু করার ছিল না নাজিবুল্লাহ জারদানের। বোল্ড হয়ে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান সাজঘরে ফিরলেন ১৪ রানে।

আফগানিস্তানের ১০০
সাকিবের বল হাঁটু মুড়ে বসে মিড উইকেট দিয়ে বিশাল ছক্কা হাঁকালেন শফিকউল্লাহ। ৬ থেকে আফগানিস্তানের রান এক লাফে গেল ১০২ এ। ১৪.২ ওভারে দলীয় শতরানের স্বাদ পায় আফগানিস্তান।

রান আউটে ফিরলেন গুলবাদিন
মাহমুদউল্লাহর থ্রো ঠিকঠাক ছিল না। খানিকটা কষ্ট করেই বল তালুবন্দি করে উইকেট ভাঙলেন মুশফিক। তাতে বাংলাদেশ পেল সাফল্য। এক বলে এক রান করে গুলবাদিন রান আউট হয়ে ফিরলেন সাজঘরে।

সাকিব ফেরালেন বিপজ্জনক নবীকে
লিগ পর্বের প্রথম ম্যাচে ৮৪ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলে বাংলাদেশকে একাই হারিয়েছিলেন মোহাম্মদ নবী। ডানহাতি ব্যাটসম্যান বরাবরই বাংলাদেশের জন্য হুমকি। সাকিব বিপজ্জনক এ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে স্বস্তি দিলেন বাংলাদেশ শিবিরে। বাঁহাতি স্পিনারের ঘূর্ণিতে পরাস্ত হয়ে এলবিডব্লিউ হন নবী। ছয় বল চার রান করে সাজঘরে ফেরেন নবী।

এবার ফিরলেন রহমানুল্লাহ
এক রানে মাহমুদউল্লাহর হাতে জীবন পাওয়ার পর রহমানুল্লাহ করলেন ২৯ রান। ১১তম ওভারে তাকে সাজঘরের পথ দেখান মুস্তাফিজুর রহমান। বাঁহাতি পেসারের শর্ট বলে ফিরতি ক্যাচ দেন রহমানুল্লাহ। তার আউটের সময় আফগানিস্তানের রান তিন উইকেটে ৮০।

আফগান শিবিরে আফিফের জোড়া আঘাত
জাজাইয়ের পর আজগর আফগানকে টিকতে দিল না আফিফ। সিরিজে প্রথম বারের মতো বল ঘুরাতে দেখা যায় আফিফকে। এসেই প্রথম ওভারে নিলেন দুই উইকেট।

টস
শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে মাঠে নেমেছে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। যেখানে প্রথমে টস জিতে আফগানিস্তানকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছে টাইগার কাপ্তান সাকিব।

টি-টোয়েন্টিতে এর আগে চারবারের দেখাতে চারবারই জিতেছে আফগানিস্তান। প্রথম দেখায় ২০১৪ সালে জিতেছিল টাইগাররা। তবে সবশেষ চলতি ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজে ঢাকায় নবী-রশিদ খানদের কাছে ২৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ একাদশ: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সাব্বির রহমান, শফিউল ইসলাম, সাইফউদ্দিন এবং মুস্তাফিজুর রহমান।

আফগানিস্তান একাদশ: রাশিদ খান (অধিনায়ক), আসগর আফগান, মোহাম্মদ নবী, হযরতউল্লাহ জাজাই, গুলবাদিন নাইব, নাজিবউল্লাহ জাদরান, শফিকউল্লাহ শাফিক, নাভিন-উল হক, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, মুজিব উর রহমান এবং করিম জান্নাত।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...