বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে চসিকের বছরব্যাপী কর্মসূচি

0

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিব বর্ষ পালনে নগরজুড়ে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) বছরব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নগরের টাইগারপাসে চসিকের অস্থায়ী কার্যালয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির সভায় মেয়র এসব কর্মসূচির কথা জানান।

সভায় মেয়র বলেন, ২০২০ সালের ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিবস থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত দেশব্যাপী মুজিব বর্ষ পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। জন্মশতবার্ষিকী পালনের জন্য সরকারগৃহিত কেন্দ্রীয় কর্মসূচির পাশাপাশি চসিকও অনুষ্ঠান উদযাপনের উদ্যোগ নিয়েছে। সংশ্লিষ্ট সেবা প্রদানকারী সংস্থাকে সমন্বিত করে চসিক জন্মশতবার্ষিকী পালনের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

সভায় তিনি বলেন, জন্মশত বার্ষিকী পালনের ১শ’ দিন আগে থেকে শুরু হবে ক্ষণগণনা। সরকার নির্দেশিত কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি দীর্ঘস্থায়ী কর্মসূচি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। প্রজন্মের মাঝে জাতির জনকের কর্মজীবন ও রাজনৈতিক জীবনকে তুলে ধরার প্রয়াসে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

সভায় মেয়র আরো জানান, বঙ্গবন্ধুর ছবি দিয়ে পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ছাপানো, আলোকসজ্জা, শোভাযাত্রা, আলোচনা, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়ানুষ্ঠানের পাশাপাশি টাইগারপাস হিলে ম্যুরাল স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

চসিক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতির জনকের জীবনীর উপর রচনা প্রতিযোগিতা, প্রতি বিদ্যালয়ে ‘ছোটদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ গ্রন্থ বিতরণ, প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা পালন, ওয়ার্ড ভিত্তিক বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান, নগরজুড়ে শিশু র‌্যালি, বঙ্গবন্ধুর কর্মজীবন নিয়ে বিভিন্ন স্পটে চিত্র ও বক্তব্য প্রদর্শন, সংশ্লিষ্ট সেবা সংস্থাকে নিয়ে আন্তঃসংস্থা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, সেমিনার আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও এতিমদের উন্নত বিশেষ খাবার পরিবেশনের পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে।

সভায় চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামসুদ্দোহা, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) মো. জাফর আলম, চসিকের সচিব আবু শাহেদ চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমেদ, প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ একেএম রেজাউল করিম, প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, থিয়েটার ইনস্টিটিউট চট্টগ্রামের পরিচালক আহমেদ ইকবাল হায়দার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

জয়নিউজ/রিফাত/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...