বাউল সেজেও রেহাই পেলেন না ইয়াবা ব্যবসায়ী

0

বাউল সেজে একতারা হাতে নিয়ে ঘোরাঘুরি করছিলেন আবদুছ সালাম (৩৮) নামে এক যুবক। তবে ছন্নছাড়া বাউলের রূপধারণ করে থাকা সালামকে সন্দেহ হয় পুলিশের। তার কাঁধে থাকা ব্যাগ তল্লাশি করতেই বেরিয়ে আসে ইয়াবা।

এমন ঘটনাটি ঘটেছে পটিয়ায়। রোববার (২৯ সেপ্টেম্বর)সন্ধ্যায় পুলিশ তার ব্যাগে তল্লাশি চালিয়ে পাঁচ হাজার ইয়াবা জব্ধ করে।

এছাড়াও পৃথক অভিযানে ইয়াবাসহ আটক করা হয়েছে মোহাম্মদ হৃদয় (৩০) নামে আরেক যুবককে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গ্রেপ্তারকৃত সালাম চন্দনাইশের হাশিমপুরের আবদুল করিমের ছেলে। অপরদিকে মোহাম্মদ হৃদয় ময়মনসিংহের পাগলা থানার ফরিদপুর গ্রামের হেলাল উদ্দিনের ছেলে। গ্রেপ্তাররা স্থানীয় এজেন্টের কাছে ইয়াবার চালান পৌঁছে দিতে কৌশলে পটিয়ায় ঘোরাঘুরি করছিলেন বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পটিয়া থানার উপপরিদর্শক মো. মোবারক হোসেন জয়নিউজকে বলেন, রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে শান্তিরহাট এলাকায় ঝুনঝুনি ও একতারাসহ বাদ্যযন্ত্র নিয়ে বাউল সেজে ঘোরাঘুরি করছিলেন সালাম। এসময় তার গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে পুলিশ তাকে চ্যালেঞ্জ করে। এক পর্যায়ে তার কাঁধে থাকা ব্যাগের ভিতর পাওয়া যায় ৫ হাজার পিস ইয়াবা।

অন্যদিকে রাত ৮টার দিকে পটিয়া থানা পুলিশের পৃথক অভিযানে মনসা বাদামতল এলাকা থেকে আটক করা হয় হৃদয় নামের আরো এক যুবককে। এসময় তার কাছে থাকা ব্যাগেও মিলে ২ হাজার ২ শ ৫০ পিস ইয়াবা।

পটিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বোরহান উদ্দিন জয়নিউজকে বলেন, গ্রেপ্তার দুই যুবকের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা করা হয়েছে। সোমবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

জয়নিউজ/কাউছার/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...