১০ দেশে হয় সবচেয়ে বেশি ধর্ষণ

0

বিশ্বজুড়েই ঘটছে ধর্ষণের ঘটনা। আমেরিকা মহাদেশ থেকে ইউরোপ, কোনোখানেই বাদ পড়ছে না ধর্ষণের চিত্র। তবে অবাক বিষয় হলো, ধর্ষণের শীর্ষ ১০ দেশের মধ্যে নেই এশিয়ার কোনো দেশ!

ধর্ষণের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৪০ নম্বরে। এখানে প্রতি এক লাখ নারীর মধ্যে প্রায় ১০ জন ধর্ষণের শিকার হন৷ অথচ সভ্য দেশের তকমা লাগানো যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে ১৪ নম্বরে!

বিভিন্ন সমীক্ষায় তুলে ধরা হয়েছে ধর্ষণে শীর্ষ ১০ দেশের চিত্র।

দক্ষিণ আফ্রিকা: এ দেশে প্রতি এক লাখে ১৩২ জনেরও বেশি নারী ধর্ষণের শিকার হন৷ দক্ষিণ আফ্রিকার মেডিকেল রিসার্চ কাউন্সিলের জরিপ অনুযায়ী, প্রতি চার জনের একজন ধর্ষণ করে সেই কথা স্বীকারও করেন৷

বোতসোয়ানা: বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে দক্ষিণ আফ্রিকার দেশ বোতসোয়ানায়৷ দেশটির প্রতি এক লাখ নারীর মধ্যে ৯৩ জন ধর্ষণের শিকার হন৷

লেসোথো: দক্ষিণ আফ্রিকার আরেক দেশ লেসোথোয় চলতি বছর তৃতীয় সর্বোচ্চ ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে৷ দেশটির মোট জনসংখ্যা মাত্র ২১ লাখ ২৫ হাজার ২৬৮ জন। তবে ভয়ংকর ব্যাপার হলো, এখানে প্রতি লাখ নারীর মধ্যে ৮৩ জন ধর্ষণের শিকার হন৷

সোয়াজিল্যান্ড: দক্ষিণ আফ্রিকার এই দেশটির জনসংখ্যা মাত্র ১১ লাখ ৪৮ হাজার ১৩০ জন৷ তবে জনসংখ্যায় পিছিয়ে থাকলেও এগিয়ে আছে ধর্ষণে। চলতি বছর দেশটিতে ৮৯৫টি ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। অর্থাৎ প্রতি এক লাখ নারীর মধ্যে ৭৮ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছেন।

বারমুডা: ধর্ষণে পিছিয়ে নেই দক্ষিণ আফ্রিকার এ দেশটিও। এখানে প্রতি লাখে ৬৭ জনেরও বেশি নারী ধর্ষণের শিকার হন৷

সুইডেন: সভ্য মহাদেশ হিসেবেই পরিচিত ইউরোপ। তবে এই মহাদেশের অন্তর্ভুক্ত সুইডেনের দিকে তাকালে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করা মুশকিল। কারণ এখানে যে প্রতি এক লাখের মধ্যে ৬৩ জনেরও বেশি নারী ধর্ষিত হন!

সুরিনাম: দক্ষিণ আমেরিকার এ দেশের জনসংখ্যা মাত্র ৫ লাখ ৮১ হাজার ২৭২। কিন্তু গতবছর দেশটিতে ২৬২ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন৷ অর্থাৎ প্রতি প্রতি লাখে ৪৫ জন নারী ধর্ষিত হচ্ছে সুরিনামে।

কোস্টারিকা: মধ্য অ্যামেরিকার দেশ কোস্টারিকা। নিয়মিত ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে এখানেও। দেশটিতে প্রতি এক লাখ মানুষের মধ্যে ৩৭ জন ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন৷ এক গবেষণায় উল্লেখ করা হয়, দেশটিতে ১৬ থেকে ১৯ বছর বয়সের নারীদের ধর্ষণ বা যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার আশঙ্কা সবচেয়ে বেশি৷

নিকারাগুয়া: মধ্য অ্যামেরিকার এই দেশটির মোট জনসংখ্যা ৬৫ লাখ ৪৫ হাজার ৫০২ জন। এখানকার প্রতি এক লাখ নারীর মধ্যে ৩২ জন ধর্ষণের শিকার হন৷ ওয়ার্ল্ড পপুলেশন রিভিউ ডটকম বলছে, দেশটির অনেক নারীই যৌন সহিংসতার ঘটনায় অভিযোগ করেন না৷

গ্রেনাডা: ছোট্ট দ্বীপ গ্রেনাডা। ক্যারিবীয় এই দেশটির জনসংখ্যা মাত্র ১ লাখ ১২ হাজার ৩ জন। ছোট্ট এই দেশটিতেও প্রতি লাখ নারীর মধ্যে ৩১ জন ধর্ষিত হচ্ছেন। সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন ১৮ থেকে ২৪ বছর বয়সি কলেজছাত্রীরা।

জয়নিউজ/হিমেল

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...