চবিতে চাঁদাবাজি করে প্রিমিয়ার ছাত্র রোমিও!

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) কার ও  সিএনজি থেকে চাঁদাবাজি করায় রোমিও নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ৷

রোমিও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল দপ্তরের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ রাশেদের ছেলে। সে নগরের প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বলে জানা গেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে না পড়লেও সে নিজেকে শাখা ছাত্রলীগের বাংলার মুখ নামক সংগঠনের কর্মী বলে দাবি করে ৷ এর আগেও তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে বেপরোয়া বাইক চালানোসহ নানা অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগও রয়েছে।

সোমবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন চত্বরের সামনে থেকে তাকে ডিবি পুলিশ তাকে আটক করে৷

সরেজমিনে দেখা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টেশন এলাকায় রেলওয়ের জমিতে দড়ি টেনে পার্কিং জোন তৈরি করেছে রোমিও। সেখানে পার্কিং করা গাড়িই হোক আর বাইরে রাখা হোক সবার থেকেই টোকেন দিয়ে চাঁদা নিচ্ছে সে। চাঁদা না দিলে রাস্তার পাশে সরকারি জমিতেও গাড়ি রাখতে দিচ্ছে না।

এসময় এক গাড়িচালকের সাথে বাকবিতণ্ডা করতে দেখে সাংবাদিকরা এর কারণ জানতে চায়। তখন সে জানায়, রেলওয়ের জমি তার বন্ধুর বাবা ইজারা নিয়েছে। তার বন্ধুর সাথে কথা বলে ওই জায়গাটিতে সে পার্কিং জোন করেছে। এক্ষেত্রে রাস্তার পাশে গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকলে যান চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে । এজন্য তাদেরকে রাস্তায় না দাঁড়িয়ে পার্কিং জোনে গাড়ি রাখার জন্য বলা হচ্ছে।

পরে পার্কিং জোনের সিএনজি চালক ও বিশ্ববিদ্যালয় এক নম্বর সড়কের পাশে পার্কিং করা সিএনজি চালকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, রোমিও সবার থেকে ৩০ টাকা দামের টোকেন দিয়ে গাড়ি পার্কিং করতে বাধ্য করা হচ্ছে তাদের। তা হোক রেলওয়ের জায়গা অথবা হোক বিশ্ববিদ্যালয়ের জায়গা। কেউ টোকেন না নিয়ে গাড়ি পার্কিং করতে চাইলে ধমক দিয়ে চলে যেতে বাধ্য করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর প্রণব মিত্র চৌধুরী জয়নিউজকে বলেন, রোমিও আমাদের কাছে অনুমতি নেয়নি। ওটা রেলওয়ের জমি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মশিউদ্দৌলা রেজা বলেন, চাঁদাবাজির সময় ডিবি পুলিশ রোমিও নামে একজনকে আটক করে থানায় পাঠিয়েছে।

জয়নিউজ/নবাব/পিডি
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...