বাংলাদেশ-ভারত সিরিজে হামলার হুমকি

0

বাংলাদেশের ক্রিকেট একের পর এক নেতিবাচক সংবাদে বিপর্যস্ত। ক্রিকেটারদের আন্দোলন, ধর্মঘটের পর এবার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। এরপর এলো আইসিসি থেকে সাকিবের ওপর সম্ভাব্য নিষেধাজ্ঞার খবর। এরমধ্যে আরেক খবরে শঙ্কার কালো মেঘ বাংলাদেশের ক্রিকেটাকাশে।

আসন্ন ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপর হামলার হুমকির খবর পেয়েছে দেশটির জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)।

হামলার হুমকির কারণে তারা ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপর নিরাপত্তা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছে দিল্লি পুলিশকে। ভারতীয় ক্রিকেট দলের ওপর, বিশেষ করে বিরাট কোহলির ওপর হামলার হুমকি সম্বলিত একটি চিঠি পেয়েছে এনআইএ।

আগামী ৩০ অক্টোবরই ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি এবং ২ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার জন্য ভারত রওয়ানা দেওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। এরপর ৩ নভেম্বর দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলায় (বর্তমানে অরুন জেটলি ক্রিকেট স্টেডিয়াম) টি-টোয়েন্টি দিয়ে শুরু হওয়ার কথা বাংলাদেশ-ভারত সিরিজের।

দিল্লি পুলিশের সূত্রের বরাত দিয়ে ‘হিন্দুস্তান টাইমস’ জানিয়েছে, চিঠিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে জাতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির ওপর হামলার হুমকির তালিকা করা হয়েছে। যেখানে রয়েছেন প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোভিন্দ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিজেপির অন্যতম শীর্ষ নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি, বিজেপির ওয়ার্কিং প্রেসিডেন্ট জেপি নদ্দা, রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ (আরএসএস) প্রধান মোহন ভগভগ।

কেরালাভিত্তিক সংগঠন ‘অল ইন্ডিয়া লস্কর’ কোহলি এবং যেসব রাজনীতিবিদ ম্যাচ দেখতে যাবেন তাদের ওপর হামলার টার্গেট করা হয়েছে বলে জানানো হয় সে চিঠিতে। দিল্লি পুলিশ ওই চিঠিটির একটি কপি পাঠিয়েছে বিসিসিআইয়ের দপ্তরে।

দিল্লি পুলিশ আরো জানায়, এ চিঠি ভুয়াও হতে পারে; কিন্তু তারা কোনো ঝুঁকি নেবেন না। ম্যাচের ভেন্যু এবং খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা জোরদার করবে দিল্লি পুলিশ। বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেই কোহলি। বিশ্রামে রয়েছেন তিনি। ভারতের নেতৃত্ব দেবেন রোহিত শর্মা।

এর আগে ভারতীয় দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও এমন হুমকি এসেছিল। তবে সেটির সত্যতা মেলেনি।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...