স্বস্তির গ্যাস পাচ্ছে ১ হাজার পরিবার

0

স্টাফ রিপোর্টার:নগরীর হালিশহরে বসুন্ধরা আবাসিকে দীর্ঘ ৫ বছর ধরে বিরাজ করছে তীব্র গ্যাস সংকট। পাশের সব এলাকায় পর্যাপ্ত গ্যাস সুবিধা থাকলেও বসুন্ধরা আবাসিকে দিনের বেশিরভাগ সময় গ্যাস থাকে না। কেননা পাশের এক ইঞ্চি পাইপ লাইন থেকে আবাসিকের দুই ইঞ্চি পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহ করা হয়।
ফলে অল্প সময়ের জন্য গ্যাস আসলেও থাকে না গ্যাসের চাপ। যত শীঘ্রই সম্ভব এমন দূরাবস্থা দূরীকরণের সবধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খায়েজ আহমেদ মজুমদার।

বৃহস্পতিবার কালে বসুন্ধরা আবাসিকে গ্যাস সংকটের চিত্র দেখতে যান কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের একটি দল। সে দলে ছিলেন কেজিডিসিএল’র ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. আব্দুল আলিম, কেজিডিসিএল শ্রমিক লীগের সভাপতি খালেদ সাইফুল্লাহ টিপু, টেকনেশিয়ান মো. রেজাউল করিম, মো. বুলবুলসহ আরও তিনজন সার্ভেয়ার। এ মনিটরিং টিমের সাথে ছিলেন নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু, যুগ্ম আহ্বায়ক দেলোয়ার হোসেন খোকন, স্থানীয় কাউন্সিলর সিরাজ, বসুন্ধরা আবাসিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি শহিদুল্লাহ পাটোয়ারি, জেলা পরিষদ সদস্য এড. উম্মে হাবিবাসহ স্থানীয় বাসিন্দাগণ।

বিকালে মনিটরিং টিমের উপস্থিতিতে এলাকাবাসীর সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়। সভায় বসুন্ধরা আবাসিক কল্যাণ সমিতির সভাপতি শহিদুল্লাহ পাটোয়ারি বলেন, বসুন্ধরা আবাসিকে ৭৮২ টি গ্যাসের সংযোগ রয়েছে। এখানে প্রায় ২৫ হাজার লোকের বাস। এখানে এত লোকের বসবাসের সত্ত্বেও রয়েছে গ্যাসের তীব্র সংকট। সেটি একদিনের সংকট নয়, দীর্ঘ ৫ বছরের সংকট।

এই ৫ বছরে আমরা অনকেবার কতৃপক্ষককে জানিয়েছি। কিন্তু কোনো সমাধান আসেনি। এমনকি জাতীয়, স্থানীয় পত্রিকা ও টেলিভিশনে বেশ কয়েকবার দুর্ভোগের চিত্র নিয়ে প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়। তারপরও কোনো সমাধা না পেলে আমরা সহযোগিতা চাই মহিউদ্দিন বাচ্চুর কাছে। তার কাছে যাওয়ার সাথে সাথে কর্ণফুলী গ্যাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে ফোন করেন। তারই পরামর্শক্রমে আমরা এর পরেরদিন নতুন করে লিখিত অভিযোগ করি। যা ফলশ্রুতিতে আজ এখানে মনিটরিং টিম এসেছে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের পাশের হালিশহর কে ব্লক, সোনালি ও পোটংকানেকটিংয়ে সবসময় গ্যাসের চাপসহ গ্যাস থাকে। কিন্তু আমাদের এখানে দিনে ২ ঘন্টার বেশি গ্যাস থাকে না। গ্যাস থাকলেও চাপ থাকে না।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু বলেন, সারাদেশে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ছড়িয়ে পড়ছে। তাঁর বলিষ্ট নেতৃত্ব আজ সারাবিশ্বব্যাপী সমাদৃত।

এমন উন্নয়নের সময়ে শহরের অন্যতম জায়গায় এমন চিত্র কাম্য নয়। আমার যারা সমন্বয় করছি উন্নয়কে সব জায়গায় ছড়িয়ে দিতে, তাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতার কারণে এমনটা হচ্ছে। নেতা মানে ক্ষমতার চর্চা নয়। নেতা মানে দায়িত্বশীলতা। আমার এলাকার মানুষকে দেশব্যাপী উন্নয়ন থেকে বঞ্চিত রেখে আমি কখনও নেতা হতে পারি না। তাই আজ আপনাদের সমস্যা সমাধানে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের টিম নিয়ে এসেছি। এ সেবা সংস্থার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমাকে আশ্বস্থ করেছেন যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আপনাদের সমস্যা সমাধান করবেন।

তিনি আরও বলেন, এ আবাসিকে দুই ইঞ্চি ওয়েরিংয়ের গ্যাস লাইন রয়েছে। অথচ সংযোগটি এসেছে এক ইঞ্চি পাইপ থেকে। যার ফলে গ্যাসের চাপ থাকে না। দুর্ভোগ পোহাতে হয় আমাদের মা-বোনদের। এখান থেকে পোর্টকানেকটিংয়ের গ্যাস লাইনের সাথে সংযোগ করে দিলে সমস্যা সমাধান হবে বলে মন্তব্য করেন।

সভায় উপস্থিত কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. আব্দুল আলিম বলেন, যে এক ইঞ্চি পাইপটি দিয়ে সংযোগ দেয়া হয়েছে। সে পাইপটি তুলে দুই ইঞ্চি পাইপ দিয়ে পোর্ট কানেকটিংয়ের সাথে সংযোগ করে দিতে হবে। যার মোট দূরত্ব ১ হাজার ৪৮০ ফিট। আজকের সার্ভে অনুসারে ব্যবস্থা পরিচালকের সিদ্ধান্তক্রমে শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

এ বিষয়ে কর্ণফুলী গ্যসা ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক খায়েজ আহমেদ মজুমদার বলেন, তারা আমাদের কাছ থেকে টাকা দিয়ে গ্যাস ব্যবহার করে। সেখানে পর্যাপ্ত গ্যাস সুবিধা পাওয়া তাদের অধিকার। আজকে মনিটরিং টিম আমাকে অবগত করেছে। যত শীঘ্রই সম্ভব আমি তাদের সমস্যা সমাধানের সবধরণের পদক্ষেপ গ্রহণ করব।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...