বৌভাতে পেঁয়াজ উপহার দিলেন বন্ধু

0

পেঁয়াজের লাগামহীন মূল্য বৃদ্ধিতে মানুষের ক্ষোভের সঞ্চার হচ্ছে প্রতিনিয়ত। পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় খাবারেও পরিবর্তন আসছে হোটেল রেঁস্তোরা ও সামাজিক অনুষ্ঠানেও।

এদিকে পেঁয়াজের ঝাঁঝ যখন চরমে, ঠিক সে সময়েই পেঁয়াজ নিয়ে রসিকতারও শেষ নেই। তেমনি বন্ধুর বৌভাতে শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে দেওয়া হয়েছে পেঁয়াজ।

শুক্রবার (১৫ নভেম্বর) দুপুরে কুমিল্লার কালখাড়পাড় এলাকায় রিপন মিয়ার বাড়িতে ব্যতিক্রমী এঘটনা ঘটে।
ঘটনাটি নিয়ে অনুষ্ঠানে আসা অতিথিদের মাঝে বেশ হাস্যরসও তৈরি হয়। এদিকে এমন উপহার দেওয়ায় ওই এলাকায় ঘটনাটি রীতিমতো সাড়া ফেলেছে।

জানা গেছে, গত শনিবার বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মচারী ও কালখাড়পাড় এলাকার হাজী আবদুর রহিমের ছেলে ইমদাদুল হক রিপনের বিয়ে হয়। শুক্রবার তার বাড়িতে বৌ-ভাতের আয়োজন করা হয়। এদিন দুপুরে রিপনের তিন বন্ধু সহিদ, শিপন ও শাহজাহান ৫ কেজি পেঁয়াজ বাজার থেকে ১ হাজার টাকায় কেনেন। এরপর আড়ম্বরপূর্ণ প্যাকেজিং করে তারা তিনজন বন্ধুর বাড়িতে দাওয়াত খেতে যান।

বিশেষ প্রক্রিয়ায় করা ওই বক্সের বাইরে থেকে পেঁয়াজ দেখার ব্যবস্থাও ছিল। তাই বিয়ে বাড়িতে যারাই এসেছিলেন তাদের সবার দৃষ্টি ছিল ওই বাক্সের দিকে।

পরে বাক্স খোলা হলে সবাই হই-হুল্লোড় শুরু করে তা দেখতে এবং এ দৃশ্যের ছবি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। কেউ কেউ দিনভর মোবাইলে ব্যতিক্রমী ওই পেঁয়াজের বাক্সের ভিডিও ও ছবি তুলে নেন।

এবিষয়ে বর ইমদাদুল হক রিপন জানান, ‘বিয়ের অনুষ্ঠানে আমার নিকট এ পুরস্কার আমরণ স্মরণীয় হয়ে থাকবে। আমার বিয়েতে যত পুরস্কার পেয়েছি সব চেয়ে মূল্যবান মনে করবো এই পেঁয়াজের উপহারকে। কারণ পুরো বাংলাদেশ এখন পেঁয়াজের ঝাঁঝে অস্থির। শুরু হয়েছে পেঁয়াজ রাজনীতি। হয়তো আমার বন্ধুদের এ পেঁয়াজ উপহার একটি নীরব প্রতিবাদও হতে পারে।’

মূল্যবান ও ব্যতিক্রমী উপহার পেঁয়াজ দেওয়ার জন্য বন্ধুদের ধন্যবাদও জানান বর রিপন।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...