এক মাসে ৫ প্রাইভেট কার চুরি

0

তের বছর প্রবাস জীবন শেষে এক বছর আগে দেশে ফিরে প্রাইভেট কার কিনেন মো. সাহাব উদ্দিন। শখের কারটি নিজেই চালাতেন। সারাদিন চালানোর পর যে আয়টুকু হতো তা দিয়ে চলত তার জীবন-জীবিকা।

কিন্তু মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) রাতে তার গাড়িটি চুরি হয়ে যায়। এরপর তিনি জিডি করেন সীতাকুণ্ড মডেল থানায়।

তিন দিন হয়ে গেলেও তার গাড়িটি এখনো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। সাহাব উদ্দিনের বাড়ি উপজেলার কুমিরা ইউনিয়নের মসজিদ্দা গ্রামে। তার পিতার নাম আফি উল্লাহ।

শুধু সাহাব উদ্দিন নন, সীতাকুণ্ডে গত এক মাসে এরকম চুরির ঘটনা ঘটেছে ৫টি। এগুলোর অধিকাংশই চুরি হয়েছে ভাটিয়ারী থেকে। এর মধ্যে একটি প্রাইভেট কার উদ্ধার করা হয়েছে। সেইটি হলো স্থানীয় সাংবাদিক জাহিদুল আনোয়ার চৌধুরীর।

তিনি বলেন, মঙ্গলবার রাতে আমার প্রাইভেট কারটিও চুরি হয়ে যায়। পরবর্তীতে চোরেরা তা সিরাজ ভূঁইয়া রাস্তার মাথায় ফেলে যায় চোররা।

ভাটিয়ারী এলাকার বাসিন্দা জাহিদ হোসেন বলেন, চলতি মাসের প্রথম দিকে আমার প্রাইভেট কারটি চুরি হয়ে যায়। গাড়িটির ডকুমেন্ট ঠিক ছিল না। সে কারণে পুলিশি ঝামেলা এড়াতে থানায় কোনো অভিযোগ করিনি।

সাহাব উদ্দিন নামে আরেকজন জানান, মঙ্গলবার রাতে তার প্রাইভেট কারটি ছোট কুমিরা ওয়াল্টন শো-রুমের পাশে গ্রিল ওয়ার্কশপের ভিতরে রেখে সে বাসায় যায়। বুধবার ভোরে এসে দেখে তার গাড়িটি চুরি হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সীতাকুণ্ড মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রবি চরণ চৌহান জয়নিউজকে বলেন, বিভিন্নস্থান থেকে সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। প্রাইভেট কারটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

জয়নিউজ/সেকান্দার/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...