নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে লাঞ্ছিত করল যুবলীগ নেতা!

0

লোহাগাড়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হলেন লোহাগাড়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদ্মাসন সিংহ।

এসময় হামলার শিকার হন উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার শিশির স্বপন চাকমা এবং সহযোগী কর্মচারী মো. সাজ্জাদ হোসেন।

জানা যায়, বুধবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে আমিরাবাদ ইউনিয়নের পশ্চিম হাজারবিঘা এলাকার মুক্তিযোদ্ধা মো. দেলোয়ার হোসেনের অভিযোগের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় যুবলীগ নেতা বাদশা খালেদের নেতৃত্বে টংকাবতী খালের বিভিন্ন অংশে অবৈধভাবে মাটি কাটা হচ্ছে। এতে ওই এলাকার বাড়িঘর ও কৃষিজমি নষ্ট হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ওই এলাকা সরেজমিন তদন্ত করতে গেলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি মাটিভর্তি ট্রাকসহ দুইজন শ্রমিককে আটক করলে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে স্থানীয় কিছু লোকজন মুখে কালো কাপড় বেধে ট্রাকটিকে ঘিরে ধরে এবং সার্ভেয়ার শিশির চাকমা এবং সাজ্জাদ হোসেন বেধড়ক মারধর করে মাটিভর্তি ট্রাকটি ছিনিয়ে নেন। পরবর্তীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পদ্মাসন সিংহকে ঘিরে ফেলে এবং লাঞ্ছিত করেন।

এব্যাপারে স্থানীয় যুবলীগ নেতা বাদশা খালেদ জয়নিউজকে বলেন, শ্রমিকরা চিনতে না পেরে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। আমি না থাকলে ঘটনা আরও বড় হতো। এছাড়াও তিনি অন্যের জায়গা থেকে মাটি কাটার বিষয় অস্বীকার করেন।

অভিযোগকারী মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেন জয়নিউজকে বলেন, ১৯৭৪ সালে আমরা যে জায়গা বন্দোবস্তি করেছি সেই জায়গা থেকে বাদশা খালেদের নেতৃত্বে অবৈধভাবে মাটি কাটা হচ্ছে। ফলে আমাদের এলাকার বাড়ি ঘর ও কৃষি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পদ্মাসন সিংহ জয়নিউজকে বলেন, অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে তিনি লাঞ্ছিত এবং কর্মচারীরা হামলার শিকার হয়েছেন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

জয়নিউজ/পুষ্পেন/বিআর

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...