তামিমের সাহসে দুঃসাহসী বাংলাদেশ

0

ডান হাতে তোর খড়্গ জ্বলে, বাঁ হাত করে শঙ্কাহরণ।

দুই নয়নে স্নেহের হাসি, ললাটনেত্র আগুনবরণ।

তোমার মুক্তকেশের পুঞ্জ মেঘে লুকায় অশনি,

তোমার আঁচল ঝলে আকাশতলে রৌদ্রবসনী।

রবীন্দ্রনাথের এই জাগরণী গানের মতই আঘাতপ্রাপ্ত হাত নিয়ে তামিম ইকবালের এক বলের ইনিংস বাংলাদেশকে দিয়েছে অমিত সাহস। যেই সাহসে বলীয়ান হয়ে রোদ্রমূর্তি ধারণ করে মুশফিকের ব্যাটে উঠল ঝড়। আর সেই ঝড়ে অশনী তো  দূরে গেলই, সঙ্গে যোগ হলো গুরুত্বপূর্ণ ৩২ রান। দল পেল এক দুর্দমনীয় মনোবল। যে মনোবলে লঙ্কানদের বিরুদ্ধে এসেছে ১৩৭ রানের বিশাল জয়।

৪৭তম ওভারের পঞ্চম বলে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে মুস্তাফিজুর রহমান যখন রান আউট হয়ে ফিরছিলেন, তখন সবাইকে অবাক করে দিয়ে মুগ্ধতা আর বিস্ময় ছড়িয়ে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্যাট করতে নামলেন আহত তামিম ইকবাল। দলের রান তখন ২২৯।  লাকমলের ওভারের শেষ বল, বাঁ হাতের গ্লাভস কেটে ব্যান্ডেজ করা আঙ্গুল বের করে ডান হাতে ব্যাট নিয়ে স্ট্রাইকে তামিম। লাকমল কি মনে করে সেই হাত সমান উঁচু বাউন্সার বল করলেন! তামিম লাফিয়ে উঠে বাঁ হাত শরীরের পিছনে লুকিয়ে ডান হাতে কোনোরকমে মোকাবেলা করলেন লাকমলের সেই বল। অথচ লাকমল ইয়ার্কার করলে হয়তো খেলা আরো কঠিন হয়ে যেত অফ ব্যালেন্সে থাকা তামিমের জন্য।

 

পুরো দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামসহ কোটি ক্রিকেটপ্রেমী দেখল খেলায় যুক্তির কাছে আবেগের জয়। যেই আবেগের বশে অসুস্থতাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে তামিম নেমে গেলেন ব্যাট হাতে!

কিন্তু এর আগেই বেশ কয়বার টিভি স্ক্রিনে ভেসে উঠেছে ড্রেসিংরুমে ভগ্ন হতাশ মলিন চেহারায় আহত তামিমকে। ততক্ষণে হাসপাতাল ফেরত তামিমের সর্বশেষ আপডেট দিয়ে ইএসপিএন ক্রিকইনফো জানায়, পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর কব্জির হাড়ে চিড় ধরা পড়েছে। ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হতে পারে তামিমকে।

যেই এশিয়া কাপের  ফাইনালে তামিমদের আছে দুই রানের অমোচনীয় কষ্ট, সেই এশিয়া কাপের অন্য ম্যাচে একটা রান বেশি যোগ করতে পারাটাই তামিমের কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে। তামিম ইকবালের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে মোকাবেলা করা হাজারো বলের মধ্যে তাই এই একটি বল ক্রিকেটপ্রেমী দর্শক ও বিশ্লেষকদের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

তাই তো ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান অধিনায়ক মাশরাফির কন্ঠেও ঝরল তামিম স্তুতি। রমিজ রাজাকে তিনি বললেন, আমি শুধু ওকে নিয়ে একটা কথাই বলতে পারি, লোকের উচিত ওকে মনে রাখা।

 

জয়নিউজ/পিএন/আরসি

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...