চবিতে শিবির সন্দেহে সাবেক শিক্ষার্থীকে মারধর

0

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) শিক্ষক হওয়ার জন্য আবেদন করতে এসে শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতাকর্মীদের মারধরের শিকার হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়েরই এক সাবেক শিক্ষার্থী। পরে তাকে হাটহাজারী থানায় হস্তান্তর করে মারধরকারীরা।

রোববার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকেল পৌনে চারটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও মানববিদ্যা অনুষদ প্রাঙ্গণে এই ঘটনা ঘটে।

মারধরকারীরা শাখা ছাত্রলীগের বগিভিত্তিক গ্রুপ বাংলার মুখের নেতাকর্মী এবং সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

মারধরের শিকার শিক্ষার্থী আজাদ হোসেন দর্শন বিভাগে শিক্ষক হওয়ার জন্য আবেদন করতে ক্যাম্পাসে এসেছিলেন বলে জানা গেছে। তিনি দর্শন বিভাগের ২০০৫-০৬ সেশনের শিক্ষার্থী ছিলেন।

মারধরের বিষয়টি স্বীকার করে বাংলার মুখ গ্রুপের নেতা ও শাখা ছাত্রলীগের সাবেক শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক আমির সোহেল জয়নিউজকে বলেন, আজাদ ছাত্রশিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত। সে শিবিরের সাথী। ছাত্রলীগের সাথে সংঘর্ষের সময় সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছিল। সামনে জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ক্যাম্পাসকে অস্থিতিশীল করতেই এখানে এসেছিল সে। শিবিরের বিরুদ্ধে আমরা ‘জিরো টলারেন্সে’ আছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর লিটন মিত্র জানান, সাবেক এক শিক্ষার্থীকে মারধরের কথা জানতে পেরেছি। আমরা ব্যবস্থা নিবো।

হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, আজাদ নামে একজনকে থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। আমরা শুনেছি সে শিবির করতো। তার ব্যাপারে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। সব তথ্য পেলে ব্যবস্থা নিবো।

 

জয়নিউজ/জেডএইচ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...