বার্সেলোনাকে হারিয়ে ফাইনালে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ

0

স্প্যানিশ সুপার কাপের সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিতে হলো বার্সেলোনাকে। তাদের হারিয়ে ফাইনালে নাম লিখিয়েছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আগামী রোববার (১২ জানুয়ারি) ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে দিয়েগো সিমিওনির শিষ্যরা।

বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) রাতে সৌদি আরবের জেদ্দার কিং আব্দুল্লাহ স্পোর্টস সিটিতে অনুষ্ঠিত স্প্যানিশ সুপার কাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে প্রথমার্ধে জালের নাগাল পায়নি কোনো দল। উত্তেজনাপূর্ণ দ্বিতীয়ার্ধে পাঁচ-পাঁচটি গোল হয়। তার মধ্যে তিনটি করে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আর দুটি করে বার্সেলোনা। তাতে ৩-২ গোলে হেরে সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নেয় মেসি-সুয়ারেজরা। অবশ্য বার্সেলোনার দুটি গোল ভিএআর এ বাদ পড়ে, তার একটি মেসির আর অন্যটি জেরার্ড পিকের।

প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হওয়ার পর দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন কোকে। মাঠে নামার কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে বার্সেলোনার জালে বল জড়ান অ্যাটলেটিকোর কোকে। এ সময় অ্যাঞ্জেল কোরেরা ডি বক্সের মধ্যে কোকেকে বল বাড়িয়ে দেন। কোকে বলের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ডান পায়ের শট নন। ডানকোণা দিয়ে গোলপোস্টের গা ঘেষে বল জালে আশ্রয় নেয়। অবশ্য ম্যাচে ফিরতে বেশি সময় নেয়নি বার্সেলোনা। ৫১ মিনিটে লিওনেল মেসি গোল করে সমতা ফেরান।

৬০ মিনিটের মাথায় মেসি আরো একটি গোল করেছিলেন। কিন্তু সেটি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ড রেফারির কাছে গেলে বাতিল হয়। ৬২ মিনিটে অ্যান্তোনিও গ্রিজমান ফিরতি বলে হেড নিয়ে যে গোলটি করেন সেটিতে এগিয়ে যায় কাতালানরা। ৭৪ মিনিটে জেরার্ড পিকে গোল করে বার্সাকে ৩-১ গোলে এগিয়েও নিয়েছিলেন। কিন্তু সেই গোলটি ভিএআর এ টিকেনি। আর্তুরো ভিদাল অফসাইড হওয়ায় বাতিল হয়।

এর পরের গল্পটুকু শুধুই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের। ৮০ মিনিটের মাথায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ভিটোলোকে ডি বক্সের মধ্যে ফাউল করেন বার্সার গোলরক্ষক নেতো। রেফারি পেনাল্টির বাঁশি বাজান। পেনাল্টি থেকে আলভারো মোরাতা গোল করে সমতা ফেরান।

৮৬ মিনিটে অ্যাঞ্জেল কোরেরা সতীর্থ মোরাতার কাছ থেকে বল পেয়ে যান। তিনি জোরালো শট নেন। সেটি বার্সার গোলরক্ষক নেতোর গায়ে লেগেও গোললাইন অতিক্রম করে। তাতে ৩-২ গোলের জয়ে ফাইনালে পৌঁছে যায় অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ।

জয়নিউজ/এসআই

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...