৫ দিন পর চালক খুনের রহস্য ভেদ করল পুলিশ

0

মাহিন্দ্র জিপ ছিনতাইয়ের উদ্দ্যেশ্যেই খুন করা হয় করা হয় মহালছড়ির চালক মো. ফারুক হোসেনকে। ঘটনার পাঁচ দিনের মাথায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তারের পর এমনটাই জানিয়েছে হত্যাকান্ডের মুল পরিকল্পনাকারী মো. মাসুম (২৮)।

খাগড়াছড়িতে চাঞ্চল্যকর মাহিন্দ্র চালক ফারুক হত্যাকান্ডের পাঁচ দিনের মাথায় রাঙ্গামাটির লঙগদু থেকে হত্যাকান্ডের মুল পরিকল্পনাকারী মো. মাসুমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে চট্টগ্রামের ইপিজেড এলাকা থেকে আটক করা হয় মো. হামিদুল ইসলাম ওরফে সাইদুল ও ফরিদ হোসেনকে। একই সঙ্গে ছিনতাই হওয়া মাহিন্দ্র জিপটিও উদ্ধার করা হয়।

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সামিউল আলমের আদালতে হত্যাকান্ডের দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেয় হত্যার মূলপরিকল্পনাকারী মো. মাসুম।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মাটিরাঙ্গা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শাহনুর আলম জানান, গত ১ ফেব্রুয়ারি তারা তিনজন রিজার্ভ করে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রে ঘুরে বেড়ানোর কথা বলে জিপটি ভাড়া নেয়। তাদের আলুটিলা পর্যটন কেন্দ্র ঘুরে মানিকছড়ি নামিয়ে দিয়ে আসার কথা ছিল। মানিকছড়ি যাওয়ার পথে মাটিরাঙ্গার কাছেই ১০ নম্বর এলাকায় আসলে প্রস্রাব করার কথা বলে মাহিন্দ্র থামায় তারা। মাহিন্দ্র থামানোর পর তারা শ্বাসরোধ করে ফারুককে হত্যা করে মাহিন্দ্র নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তাদের পুর্বপরিচিত গ্যারেজ মেকানিক মো. শাকিলের মাধ্যমে চট্টগ্রামের ইপিজেড এলাকার মো. হামিদুল ইসলাম ও ফরিদ হোসেনের কাছে এক লাখ টাকায় বিক্রি করে দেয়।

জয়নিউজ/জাফর/পিডি

 

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...