ঋতুরাজকে বরণে বর্ণিল আয়োজন

0

মুজিববর্ষকে নিবেদন করে ‘নিবিড় অন্তরতর বসন্ত এলো প্রাণে’ শিরোনামে বোধন বসন্ত উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার(১৪ ফেব্রুয়ারি) বোধন আবৃত্তি পরিষদ চট্টগ্রামের উদ্যোগে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন আন্দরকিল্লার ‘নগর ভবন’ উন্মুক্ত প্রাঙ্গণে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হয়।

উৎসব উদ্বোধন করেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক রীতা দত্ত। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।

কথামালায় অংশগ্রহণ করেন আইনজীবী স্বভু প্রসাদ বিশ্বাস, লায়ন রফিক আহামদ, লিয়াকত হোসেন খোকন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, প্যানেল মেয়র চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, নাট্যজন সাইফুল আলম বাবু, চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ুয়া, কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন ও আবুল হাসনাত বেলাল।

দোলন কানুনগোর বাজানো মোহন বীণার ভৈরবী সুরে বসন্ত উৎসবের শুভারম্ভ হয়। এরপর আবৃত্তি, সঙ্গীত, নৃত্য, কথামালা ও ঢোল বাদনের মধ্য দিয়ে ঋতুরাজ বসন্তকে বরণ করে নেওয়া হয়।

বিকেলের অনুষ্ঠান মালার শুরুতেই শোভাযাত্রা নগরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বোধন বসন্ত উৎসব মঞ্চে দ্বিতীয় পর্বের আয়োজনে বিভিন্ন শিল্পী ও দলীয় সংগঠনের পরিবেশনার মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়। ভারতীয় সহকারী হাইকমিশন চট্টগ্রামের সহযোগিতায় আয়োজিত এই উৎসব প্রাঙ্গণে পিঠাপুলি, কুটির শিল্প প্রদর্শনী, ইস্পাহানীর সৌজন্যে চা ও হামদর্দের সৌজন্যে পানীয় দিনব্যাপী উৎসবকে প্রানবন্ত করে রাখে।

সুদীপ সেনগুপ্তের পরিচালনায় তবলার লহড়া এবং বিজয় জলদাসের পরিচালনায় সম্মেলক ঢোল বাদন পরিবেশিত হয়। দলীয় নৃত্যে অংশ নেয় ওডিসী এন্ড টেগোর ড্যান্স মুভমেন্ট সেন্টার, ঘুঙুর নৃত্যকলা একাডেমি, সুরাঙ্গন বিদ্যাপীঠ, রুমঝুম নৃত্যকলা একাডেমি, প্রীতিলতা সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, সঞ্চারী নৃত্যকলা একাডেমি, স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল ডান্স, নটরাজ নৃত্যাঙ্গন একাডেমি, গুরুকুল ডান্স একাডেমি, নৃত্য নিকেতন, নৃত্যম একাডেমি। দলীয় সংগীত পরিবেশন করে উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদ, সংগীত ভবন, অভ্যুদয় সঙ্গীত অঙ্গন, গীতধ্বনি, গুরুকুল সঙ্গীত একাডেমি, অদিতি সংগীত নিকেতন।

দলীয় আবৃত্তি পরিবেশন করে বোধন আবৃত্তি পরিষদ। একক আবৃত্তি করেন আবৃত্তিশিল্পী অঞ্চল চৌধুরী, শিমুল নন্দী, সুছন্দা ঘোষ চৌধুরী, এএসএম এমরান, বনকুসুম বড়ুয়া, মৌসুমী চক্রবর্তী, রণধীর দে, প্রবীর পাল, রাজিউর রহমান বিতান, পিউ সরকার, আরমান হাফিজ, শাহেদুল ইসলাম, সেঁজুতি বড়ুয়া, সুপ্রিয়া চৌধুরী, ঐশী পাল, দ্বৈত আবৃত্তি-সন্দ্বীপন সেন একা, প্রজ্ঞা পারমিতা সেন, ত্রয়ী আবৃত্তি -সুতপা মজুমদার, ইতু সাহা, পৃথুলা চৌধুরী, তারমিন পুষ্পা, তুর্ণা দাম, মৃত্তিকা চক্রবর্ত্তী।

এতে ছড়া পাঠ করেন আফম মোদাচ্ছের আলী। একক সংগীত পরিবেশন করেন শ্রেয়সী রায়, ফাহমিদা রহমান, মধুলিকা মন্ডল, গীতা আচার্য্য, অমিত সেনগুপ্ত, নুসরাত রিনি, দেবলিনা চৌধুরী, জলি মুখার্জী, করবী দাশ, প্রিয়া ভৌমিক, মোহিমা দেব ত্রয়ী, রিয়া সেনগুপ্ত, প্রীতম ভট্টাচার্য্য ও সাইফুল ইসলাম সাঈফ। দ্বৈত গানে অংশ নেন জয়সেন হিরো, ববি মনি, আলী হোসেন শাওন ও প্রিয়াঙ্কা দাশ।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন প্রনব চৌধুরী, জাভেদ হোসেন, প্রবীর পাল, মাইনুল আজম চৌধুরী, শারমিন মৃত্তিকা, তৈয়বা জহির আরশি, অসীম দাশ, রমিজ বাবু, রীমা দাশ, জিকো সরকার, নিশি চৌধুরী জুঁই, সেহেলি হাসনাত ও এ্যানি গুহ।

জয়নিউজ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...