তারকাদের রেকর্ডের রাতে আমজনতার নায়ক টেন্ডুলকার

0

২০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দুজন বিজয়ী পেয়েছে লরিয়াস ক্রীড়া পুরুস্কার। সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) রাত তাই ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নিল। জার্মানির বার্লিনে দেওয়া হলো ২০১৯ সালের লরিয়াস ক্রীড়া পুরস্কারে প্রথমবারের মতো কোনো ফুটবলার হিসেবে এ সম্মান পেলেন লিওনেল মেসি। কিন্তু চূড়ান্ত বিজয়ী হিসেবে বছরের সেরা ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব একা হওয়া সম্ভব হয়নি মেসির পক্ষে। ভোটাভুটিতে তাঁর সমান ভোট পেয়েছেন ফর্মুলা ওয়ানের লুইস হ্যামিল্টনও। ২০ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দুজন বিজয়ী পেয়েছে লরিয়াস।

বর্ষসেরা ক্রীড়াবিদ হ্যামিল্টন ও মেসি হলেও কাল রাতে মানুষের নায়ক হয়ে উঠেছিলেন ক্রিকেটের লিজেন্ড টেন্ডুলকার। বিভিন্ন ক্যাটাগরির মাঝে মাত্র একটি পুরস্কারেই সাধারণ মানুষের ভোট দেওয়ার সুযোগ ছিল। আর গত বিশ বছরের সেরা ক্রীড়া মুহূর্তের সে পুরস্কার উঠেছে শচীন টেন্ডুলকারের হাতে। ২০১১ সালে বিশ্বকাপ জয়ের পর টেন্ডুলকারকে ঘাড়ে তুলে ভারতীয় দলের উদ্যাপনের সে স্মৃতি এখনো অম্লান ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে। আর তাদের এই বিপুল সমর্থন এ পুরস্কার পেতে টেন্ডুলকারের পথে অন্য কাউকে বাঁধা হতে দেয়নি।।

বর্ষসেরা নারী ক্রীড়াবিদ হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের জিমন্যাস্ট সিমোনা বাইলস। আর বিশ্বসেরা দল নির্বাচিত হয়েছে ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ জেতা দক্ষিণ আফ্রিকার রাগবি দল।

ছুটিতে থাকায় প্রথম ফুটবলার হিসেবে লরিয়াস জেতার মুহূর্তে থাকতে পারেননি মেসি। তবে এক ভিডিও বার্তায় বলেছেন, ‘কোনো দলীয় খেলা থেকে প্রথম ব্যক্তি হিসেবে এই পুরস্কার জেতায় আমি গর্বিত।’

আর স্টিভ ওয়াহর কাছ থেকে সেরা মুহূর্তের পুরস্কার বুঝে নেওয়া টেন্ডুলকার বলেছেন, এখানে অনেক অ্যাথলেট আছেন, যাদের অনেক কিছু ছিল না। তবুও তারা খেলাকে পেশা হিসেবে বেছে নেওয়ায় এবং নিজের স্বপ্ন পূরণ করে তরুণদের অনুপ্রাণিত করায় আমি তাদের ধন্যবাদ দিই। এ পুরস্কার শুধু আমার নয়, তাদের সবার।

জয়নিউজ/পিডি

 

সরাসরি আপনার ডিভাইসে নিউজ আপডেট পান, এখনই সাবস্ক্রাইব করুন।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...