খাটের নিচে ২৫ লাখ টাকা, আটক ১

0

রামুর রাজারকুল ইউনিয়নের নারিকেল বাগান এলাকা থেকে নগদ ২৫ লাখ টাকাসহ দুবাই প্রবাসী স্ত্রী সামিরা বেগম নামে এক মহিলাকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে ১০ হাজার পিস ইয়াবা জব্ধ করা হয়।

মঙ্গলবার (৩ মার্চ) বিকালে তাকে আটক করা হয়।

এ ঘটনায় ডিবির পুলিশ পরিদর্শক আশরাফুজ্জামান বাদী হয়ে আটক সামির বেগমকে প্রধান আসামি করে মামলা করা হয়েছে। একই ঘটনায় রামুর রাজারকুলের দেয়াংপাড়া এলাকার মৃত মোহাম্মদ ইসলামের ছেলে আব্দুর রহমান ও তার স্ত্রী মোসাম্মৎ নাসরিনকে আসামি (পলাতক) করে রামু থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। মঙ্গলবার বিকালে আটক প্রবাসীর স্ত্রী সামিরা বেগমকে সঙ্গে নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো জানায়, সোমবার সন্ধ্যায় কক্সবাজার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) রেজওয়ান আহমদের নেতৃত্বে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একটি টিম অভিযান চালিয়ে সামিরা বেগমকে আটক করে এবং নগদ টাকাসহ ইয়াবা জব্ধ করে।
এ অভিযানে আরো অংশ নেন কক্সবাজার ডিবির পুলিশ পরিদর্শক আশরাফুজ্জামান, পুলিশ পরিদর্শক এসএম মিজানুর রহমান, এসআই রাজীব কুমার সূত্রধর, এএসআই মো. সাজেদুল ইসলাম ও এসআই জনি দেবদাস।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার (২ মার্চ) সন্ধ্যায় ডিবি পুলিশের একটি টিম কক্সবাজারের রামু উপজেলার রাজারকুল ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড নারকেল বাগান এলাকার নয়াপাড়া হাসিনানগর নামক স্থানে দুবাই প্রবাসী মো. জয়নালের বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় মো. জয়নালের বসতঘরে শয়নকক্ষের খাটের নীচ থেকে উদ্ধার করা হয় নগদ ২৫ লাখ টাকা ও ১০ হাজার পিস ইয়াবা।। এ সময় দুবাই প্রবাসীর স্ত্রী সামিরা বেগমকে আটক করে পুলিশ।

জেলা গোয়েন্দা শাখা অফিসে প্রেস ব্রিফিংকালে আটক সামিরা বেগম জানান, নাসরিন ও আব্দুর রহমান তার আত্মীয়। রোববার বিকালে রামুর জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের উত্তর মিঠাছড়ি এলাকার চৌধুরীপাড়ার জনৈক ফজলুল হক চৌধুরীর ভাড়া বাসায় থেকে ১ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় আটককৃতরা ওই ইয়াবা এবং নগদ টাকাগুলো জমা রেখেছিল।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক এসএম মিজানুর রহমান জানান, পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

জয়নিউজ/খালেদ/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...