৩৩৩ নম্বরে ফোন, মধ্যরাতেই ত্রাণ পাঠালেন ইউএনও!

0

স্বামী মারা গেছেন অনেক আগেই। বৃদ্ধা শাশুড়ি আর ১ ছেলে ২ মেয়ে নিয়ে কষ্টের সংসার হাটহাজারীর বুড়িশ্চর এলাকার ফেরদৌস আক্তারের। স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় দৈনিক ১০০ টাকা বেতনে কাজ করেই কোনোরকমে সবার মুখে দু’বেলা খাবার তুলে দিতেন। কিন্তু প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রভাবে ৮ দিন ধরে বন্ধ প্রতিষ্ঠান। ফলে তিনিও বেকার হয়ে পড়ে ফেরদৌস আক্তার। এদিকে ঘরে খাবার কিছুই নেই, সেইসঙ্গে পাননি কোনো ত্রাণ সহায়তাও।

কোনো উপায় না দেখে ওই নারী ফোন দেন ৩৩৩ তথ্যসেবা নম্বরে। সেখান থেকে ফোন নম্বর নিয়ে হাটহাজারী উপজেরা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুহুল আমিনকে জানান নিজের কষ্টের কথা।

সব শুনে দেরি করলেন না ইউএনও বুধবার (১ এপ্রিল) মধ্যরাতেই ফেরদৌস আক্তারের বাড়িতে পৌঁছে দিলেন খাদ্য।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ইউএনও রুহুল আমিন বলেন, করোনাভাইরাসের প্রভাবে ওই নারীর আয় বন্ধ হয়ে গেছে। এখনো কারো কাছ থেকে ত্রাণও পাননি তিনি। ফোনে বিষয়টি জানা মাত্র বাসায় ১০ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক কেজি পেঁয়াজ, ৫ কেজি আলু এবং দুই লিটার তেল পৌঁছে দিয়েছি।

জয়নিউজ/আবু তালেব/পিডি

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...