বিতর্কিত রনির সেই মামা ত্রাণ নয়ছয় করায় বরখাস্ত

0

ত্রাণ নিয়ে নয়ছয় এবং ত্রাণ দিয়ে ছবি তুলে পরে কেড়ে নেওয়ার ঘটনায় হাটহাজারীর মির্জাপুর ইউনিয়নের ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আবছারকে বরখাস্ত করা হয়েছে। রোববার (১২ এপ্রিল) বিকেলে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

সূত্র জানায়, গত ৬ এপ্রিল ২৬ জন অসহায়কে সরকারি ত্রাণ দিয়ে ছবি তুলে নুরুল আবছার। ছবি তোলার পর সেসব ত্রাণ আবার কেড়ে নেওয়া হয়। এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। পরে ভুক্তোভুগিরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এছাড়া ওই ঘটনায় মির্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৮ জন সদস্য চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব দেয়।

আরো পড়ুন: ত্রাণে নয়ছয়, চেয়ারম্যানের বহিষ্কার চান ইউপি সদস্যরা

নুরুল আবছার বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের কারণে দল থেকে অব্যাহতি নেওয়া ছাত্রলীগ নেতা নুরুল আজিম রনির মামা। এর আগে ২০১৬ সালের ৭ মে নুরুল আবছারের পক্ষে মির্জাপুর ইউনিয়নে একটি কেন্দ্রের পাশে অস্ত্র, গুলি ও ব্যালট পেপারে ব্যবহৃত সিলসহ নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিমকে আটক করে বিজিবি।

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ভোট কেন্দ্রে অবৈধ প্রবেশ ও প্রভাব বিস্তারের অভিযোগে ইউপি নির্বাচন আইনে তাঁকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন। এছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে হাটহাজারী থানায় অস্ত্র আইনে পুলিশ বাদী হয়ে আরেকটি মামলা করে।

এছাড়া নুরুল আজিম রনি চট্টগ্রামের জিইসি মোড়ের একটি কোচিং সেন্টারের পরিচালক রাশেদ মিয়াকে চড় মারার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়লে নুরুল আজিম রনি ছাত্রলীগ থেকে পদত্যাগ করেছেন বলে জানা যায়। যদিও ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ তখন বলেছিলেন, বির্তকিত কর্মকাণ্ডের কারণে নুরুল আজিম রনিকে পদ থেকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তার অব্যাহতির কোনো সুযোগ নেই।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...