ফের জয়নিউজের পথেই সিএমপি, রেলস্টেশনে রেয়াজউদ্দিন বাজার

0

কয়েকদিন আগে জয়নিউজে ‘রেলস্টেশন-লালদিঘী-প্যারেড মাঠ হয়ে যাক রেয়াজউদ্দিন বাজার-বক্সিরহাট-চকবাজার’ শিরোনামের প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। প্রতিবেদনে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিতে থাকা কাঁচাবাজারগুলোর চিত্র তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনটিতে ঝুঁকিপূর্ণ বাজারগুলোকে খোলা মাঠে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ দেন জয়নিউজ সম্পাদক অহীদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন।

সেই পরামর্শ একে একে বাস্তবায়ন হতে চলেছে। গত ১৭ মার্চ নগরের দ্বিতীয় বৃহত্তম চকবাজার কাঁচাবাজারকে প্যারেড মাঠে স্থানান্তর করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। এবার নগরের সবচেয়ে বড় রিয়াজউদ্দিন কাঁচাবাজারও অস্থায়ীভাবে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হলো নতুন রেলওয়ে স্টেশনের সামনের খোলা জায়গায়।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) সিএমপির উদ্যোগে স্থাপিত করোনা প্রতিরোধবান্ধব কাঁচাবাজারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল চৌধুরী।

উদ্বোধনী আয়োজনে তিনি বলেন, খোলা জায়গায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের এরকম বাজার বসানোর কাজটি প্রশংসনীয় উদ্যোগ। সবাই লকডাউনে থাকলেও পুলিশ নেই। তারা ২৪ ঘণ্টা জনগণের সেবায় নিয়োজিত আছেন। করোনা ভাইরাসের কারণে মানুষ যাতে নিরাপদে বাজার করতে পারেন সেই ব্যবস্থা করছে পুলিশ।

তিনি বলেন, দেশে লাখ লাখ সবজি উৎপাদনকারী রয়েছে। তারা সঠিকভাবে যদি সবজি বিক্রি করতে না পারেন, দুর্ভোগে পড়বেন। সেজন্য খোলা জায়গায় বাজার বসানোর মাধ্যমে সুন্দর বিপণন ব্যবস্থা গড়ে তুলছে পুলিশ। এরকম বিপণন ব্যবস্থায় তারা লাভবান হবেন। উৎপাদন ও বিপণনকে যাতে স্বাভাবিক রাখা যায় সেদিকেও সরকারের নজর রয়েছে।

এসময় তিনি ক্রেতা, বিক্রেতা ও রেয়াজউদ্দিন বাজার সমিতির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন।

সিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) এসএম মেহেদী হাসানের সভাপতিত্বে ও কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহসীনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান।

কাঁচাবাজারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম রেঞ্জ ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারশেন) শ্যামল কুমার নাথ প্রমুখ।

নগরের রিয়াজউদ্দিন কাঁচাবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সহযোগিতায় ও কোতোয়ালি থানার ব্যবস্থাপনায় প্রাথমকিভাবে ২৫০টি দোকান স্থাপন করা হয়েছে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এখানে প্রতিদিন বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত চলবে কেনাবেচা।

জয়নিউজ/হিমেল/পলাশ
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...