প্রসূতিকে ভর্তি নেয়নি, হাসপাতালের গেটেই সন্তান প্রসব

0

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার রাশেদা বেগম (৫০) নামে এক গর্ভবর্তী মা সন্তান প্রসবের জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এলেও ভর্তি নেননি চিকিৎসকরা। পরে ফিরে যাবার মুহূর্তে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের গেট সংলগ্ন স্থানে সন্তান প্রসব হয় তার।

মঙ্গলবার (২৬ মে) সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত চিকিৎসক রিপন কুমার বর্মণ বিষয়টি জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার (২৫ মে) ঈদের দিন সন্ধ্যার দিকে সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গেট সংলগ্ন স্থানে রাশেদা বেগম ছেলে সন্তান জন্ম দেন।

ওই প্রসূতি উপজেলার দামোদরপুর ইউনিয়নের জামুডাঙ্গা (ভাঙ্গা বাঁধের মাথা) গ্রামের বাদশা মিয়ার স্ত্রী।

প্রসুতির স্বজনরা জানান, বাড়িতে থাকা অবস্থায় রাশেদা বেগমের প্রসব বেদনা ওঠে। এসময় বিলম্ব না করে সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। সেখানে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা রাশেদাকে ভর্তি করে নেননি।

চিকিৎসকদের একাধিকবার অনুরোধ করা হলেও তারা রোগীকে ভর্তি নেননি। নিরুপায় হয়ে ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বের হয়ে আসার সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স গেট সংলগ্ন স্থানে রাশেদা বেগমের সন্তান প্রসব হয়। এসময় স্থানীয় লোকজন সহযোগিতা করেন রাশেদাকে।

চিকিৎসক রিপন কুমার বর্মণ জানান, অধিক বয়সী গর্ভবর্তীদের প্রসবের সময় রক্তক্ষরণ বেশি হয়। এ জন্য রাশেদাকে ভর্তি করে নেওয়া হয়নি। তাকে অন্যত্র ভর্তির পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...