ঘর ছাড়ার নোটিশে বিপাকে প্রিয়াঙ্কা

0

ভারতের কংগ্রেস নেতা প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর উপর একের পর এক নেমে আসছে মোদি সরকারের খড়গ।

গেল বছরের  নভেম্বরে এসপিজি নিরাপত্তা (স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপ সিকিউরিটি) সরিয়ে নেওয়া হয়েছিল। প্রত্যাহার করা হয়েছে জেড প্লাস সিকিউরিটিও। এবার নয়াদিল্লির অভিজাত ৩৫ নম্বর লোধি এস্টেটের বাংলো খালি করতে হবে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে। এমনই নোটিশ জারি করা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

নোটিশে এক মাসের মধ্যে অর্থাৎ আগামী ১ আগস্টের মধ্যে বাংলোটি খালি করতে হবে প্রিয়াঙ্কাকে। মূলত স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপের (এসপিজি) পরামর্শ মতো ১৯৯৭ সালে এ বাংলোটি ‘স্পেশাল লাইসেন্সি’ হিসেবে থাকতে দেওয়া হয় প্রিয়াঙ্কাকে। যার মাসিক ভাড়া ঠিক হয় ৩৭ হাজার রুপি। সেই অর্থও নাকি প্রিয়াঙ্কা ঠিক মতো মেটাননি বলেই অভিযোগ।

নগরোন্নয়ন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানায়, তিন লাখ ৪৬ হাজার রুপি ভাড়া বাকি প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর। তাছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখন এসপিজি নিরাপত্তাও প্রত্যাহার করে নিয়েছে। জেড প্লাস নিরাপত্তাও নেই। তাই বিশেষ সুবিধা পাওয়ার মতো আর পরিস্থিতি নেই বলেই ওই বিশাল বাংলো এক মাসের মধ্যে খালি করতে নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

তবে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়ের কাছে বাংলোটি এখনই না নেওয়ার জন্য আবেদন করা হবে। দেশটিতে করোনা পরিস্থিতিতে মিটে যাওয়া অব্দি সময় চাওয়া হবে বলে জানা গেছে।

জয়নিউজ/পিডি

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...