আধিপত্যের লড়াইয়ে জেএসএস, নিহত ৬

0

আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বান্দরবানে পার্বত্য জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) দু’গ্রুপের সংঘর্ষে সংস্কারপন্থী গ্রুপের ৬ জন নিহত হয়েছেন। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন আরও তিনজন। মঙ্গলবার (৭ জুলাই) ভোরে সদরের রাজবিলার বাঘমারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- জেএসএসের সংস্কারপন্থী গ্রুপের জেলা সভাপতি রতন তঞ্চঙ্গ্যা, সহসভাপতি প্রজিত চাকমা, সদস্য ডেবিট বাবু, মিলন চাকমা, জয় ত্রিপুরা ও দিপেন ত্রিপুরা। আহতরা হচ্ছেন- খাগড়াছড়ির বাসিন্দার নিং চাকমা (৪২), বিদ্যুৎ ত্রিপুরা (৩৩)। অপরজনের নাম পাওয়া যায়নি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ভোরে মূল পার্বত্য জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) ও সংস্কারপন্থী জেএসএস এমএন লারমা গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। এতে প্রতিপক্ষের গুলিতে জেএসএসের সংস্কারপন্থী গ্রুপের ৬ জন নিহত হয়।

৬নং নোয়াপতং ইউপি সদস্য মিচি মার্মা বলেন, আহতদের বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর পুরো এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেছেন সেনাবাহিনী, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। ঘটনাস্থল থেকে হতাহতদের উদ্ধার করা হয়েছে। গুলির খোসাসহ সন্ত্রাসীদের ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসপত্রও উদ্ধার করা হয়েছে।

বান্দরবান সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত বলা যাবে।

বান্দরবানের পুলিশ সুপার জেরীন আক্তার জানান, সশস্ত্র সন্ত্রাসী দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ৬ জন মারা গেছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে আরও ৩ জন। তবে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীরা কারা বিষয়টি তদন্ত না করে বলা ঠিক হবে না। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ হতাহতদের উদ্ধার করেছে।

জয়নিউজ/শাহরিয়ার/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...