সীমান্ত অপরাধ প্রতিরোধে জিরো টলারেন্সে বিজিবি

কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে তারিক আহমেদ সিদ্দিক

0

সাতকানিয়ার বায়তুল ইজ্জতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড কলেজের ৯২তম রিক্রুট ব্যাচের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ বৃহস্পতিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সম্পন্ন হয়েছে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক, আরসিডিএস, পিএসসি প্রধান অতিথি হিসেবে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন । এ সময় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাফিনুল ইসলাম, এনডিসি, পিএসসি ও বর্ডারগার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড কলেজের কমান্ড্যান্ট ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসেন, এনডিসি, পিএসসি উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে নবীন সৈনিকদের উদ্দেশ্যে তারিক আহমেদ সিদ্দিক বলেন, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সদস্য হিসেবে আজ থেকে দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষার মহান দায়িত্ব অর্পিত হলো তোমাদের উপর।

তিনি বিজিবিকে একটি দক্ষ, চৌকস এবং প্রশিক্ষিত বাহিনী হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, একটি বলিষ্ঠ ও দক্ষ বাহিনী গড়ে তোলার জন্য সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন কঠোর প্রশিক্ষণ, সচ্চরিত্র, মানসিক দৃঢ়তা, অধ্যবসায়, শৃঙ্খলাবোধ এবং সঠিক নেতৃত্ব। তিনি সৈনিক জীবনে আনুগত্য, শৃঙ্খলা, ধর্মীয় বিশ্বাস, মানবিক এবং নৈতিক মূল্যবোধ এর প্রতি গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি সকলকে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার প্রতি আনুগত্যশীল থাকার এবং নিজেদের মধ্যে ভ্রাতৃত্বসুলভ মনোভাব বজায় রাখার উপদেশ দেন।

অনুষ্ঠানে শারীরিক উৎকর্ষতায় শ্রেষ্ঠ নবীন সৈনিক মো. জুয়েল মিয়া ও নিশি খাতুন, সেরা ফায়ারার আবদুল্লাহ আল ওয়ায়েজ এবং সেরা সৈনিক মো. সজীব হোসেনকে প্রধান অতিথি ক্রেস্ট প্রদান করেন। কুচকাওয়াজ পরিচালনা করেন প্যারেড কমান্ডার মেজর কাজী মঞ্জুরুল ইসলাম এবং প্যারেড অ্যাডজুটেন্ট সহকারী পরিচালক মো. নজরুল ইসলাম।
এ সময় চট্টগ্রাম সেনানিবাসের ২৪ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল এস এম মতিউর রহমান, ১০ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি মেজর জেনারেল মো. মাকসুদুর রহমান, চট্টগ্রাম নেভাল এরিয়া কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল এম আবু আশরাফ, এয়ার কমডোর এম মফিদুর রহমান, চট্টগ্রাম-১৫ আসনের সাংসদ প্রফেসর ড. আবু রেজা নেজামুদ্দীন নদভী, বিজিবি’র জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. মহসিন বিল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

পরে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, সীমান্তে চোরাচালান, মাদক, অস্ত্র, নারী ও শিশু পাচার, অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমসহ সব ধরনের সীমান্ত অপরাধ প্রতিরোধে বিজিবি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। তিনি বলেন, সীমান্ত অপরাধে সংশ্লিষ্টতার দায়ে অনেকের শাস্তি হয়েছে। এক্ষেত্রে আমরা জিরো টলারেন্সে।

জয়নিউজ/আরসি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...