দেড় সপ্তাহেও খোঁজ মেলেনি অপহৃত দুই যুবকের

0

বান্দরবানে আওয়ামী লীগ কর্মীসহ অপহৃত দুই যুবকের খোঁজ মেলেনি দেড় সপ্তাহেও। সিক্স মার্ডারের সঙ্গে জড়িতরাই নিখোঁজ দুই যুবককে অপহরণ করেছে দাবি গ্রামবাসীদের। এদিকে বান্দরবানে সিক্স মার্ডার হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (১৩ জুলাই) ও হত্যার রহস্য উন্মোচন, হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও অপহৃতদের উদ্ধারে সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অভিযান চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছে কুহালং ইউনিয়নের উজিপাড়ার বাসিন্দার এজাহারভুক্ত দুই নাম্বার আসামি অংপ্রু মারমা (৪০)ও অজ্ঞাতনামা আসামি সুশান্ত চাকমা (৩২)।

অপরদিকে সিক্স মার্ডারের কদিন আগে (৫ জুলাই) কুহালং ইউনিয়নের রাবার বাগান এলাকা থেকে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে অপহৃত যুবক গুংগা জলি ত্রিপুরা (৪১) এবং সদর ইউনিয়নের হেব্রনপাড়া থেকে একইভাবে মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে গত ২ জুলাই অপহৃত আওয়ামী লীগের কর্মী লুলথাং বম (৩০) দুজনের কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি।

স্থানীয়দের অভিযোগ, অপহরণকারী সন্ত্রাসীরাই সিক্স মার্ডার হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। অপহৃত দুই যুবককেও অপহরণের পর হত্যা করে লাশ ঘুম করেছে সন্ত্রাসীরা। ইতোপূর্বের অপহরণ ঘটনাগুলোর বর্ণনা থেকে তাই মনে হচ্ছে।

অপহৃত যুবকের বড়ভাই জগদীশ ত্রিপুরা জয়নিউজকে বলেন, ছোটভাই আমার বাসায় বাগানের আম দিয়ে বাড়ি ফেরার পথেই অপহরণ হয়েছে। কারা? কেন? আমার ভাইকে অপহরণ করেছে বুঝতে পারছি না। আমার ভাই কোনো রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিল না। ছোট ভাইয়ের নিখোঁজের খবরে পরিবারের সবাই আতঙ্কে রয়েছে। কারোর চোখে ঘুম নেই, খাওয়া দাওয়া ছেড়ে দিয়েছে বাবা-মা। ভাইকে খুঁজে পেতে থানায় ডায়েরিও করেছি।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহীদুল ইসলাম চৌধুরী জয়নিউজকে বলেন, সিক্স মার্ডার হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত আসামিসহ গ্রেপ্তারকৃত দু’জনকে আদালতের নির্দেশে জেলে পাঠানো হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। অপহৃত দুই যুবকের খোঁজ মেলেনি। তবে অপহৃতদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রেখেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
প্রসঙ্গত: গত ৭ জুলাই সকালে বান্দরবানের রাজবিলা ইউনিয়নের বাঘমারা বাজারপাড়া এলাকায় ব্রাশ ফায়ারে জেএসএস এমএন লারমা (সংস্কার) গ্রুপের শীর্ষ নেতাসহ ছয়জনের মৃত্যু হয়।

জয়নিউজ/আলাউদ্দীন/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...