ফারুক হত্যার ২০ দিন পর খুনি আটক

0

রামগড়ে বহুল আলোচিত ফারুক হত্যাকাণ্ডের ২০ দিন পর মৃদুল কান্তি ত্রিপুরা আকাশ (১৮) নামে এক আসামিকে আটক করেছে পুলিশ। আটক মৃদুল পৌরসভার কালাডেবা এলাকার উপেন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে।

শনিবার (১ আগস্ট) কালাডেবা এলাকা থেকে আটক করে রামগড় থানা পুলিশ।

রামগড় থানা পুলিশের দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঘটনার কয়েকদিন আগে আসামি মৃদুল ঘটনাস্থলের কিছু দূরে ব্রিজের উপর রাতে বসে মোবাইলে কথা বলছিল। ওই রাস্তা দিয়ে ফারুক হেঁটে যাওয়ার সময় মৃদুলের পায়ের সঙ্গে আঘাত লাগলে মৃদুল দুঃখ প্রকাশ করার পরও ফারুক মৃদুলকে চড় মারে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে ফারুককে উচিৎ শিক্ষা দেওয়ার পরিকল্পনা করে মৃদুল।

জানা যায়, ঘটনার দিন গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির মধ্যে ওমর ফারুক ছাতা মাথায় মোবাইলের হেডফোনে কথা বলতে বলতে বাড়ি ফিরছিলো। ফারুক ঘটনাস্থলে ব্রিজের উপর অপেক্ষারত মৃদুলকে অতিক্রম করে চলে গেলে মৃদুল পিছু নেয় এবং এক সময় কাঠের টুকরো দিয়ে ফারুকের মাথায় সজোরে আঘাত করে। সঙ্গে সঙ্গে ফারুক মাটিতে পড়ে গেলে আসামি মৃদুল ফারুকের ব্যবহৃত মোবাইলটি নিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় ফারুকের মাথা ফেটে প্রচুর রক্তক্ষরণের ফলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রাতে মারা যায়।

রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সামসুজ্জামান জয়নিউজকে বলেন, খাগড়াছড়ি পুলিশ সুপার আব্দুল আজিজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো. মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রামগড় সার্কেল সৈয়দ মো. ফরহাদের তত্ত্বাবধানে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মনির হোসেনের সহায়তায় এসআই অজয় চক্রবর্তী আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে শনিবার কালাডেবা বাজার স’মিল এলাকা থেকে আসামি মৃদুল কান্তি ত্রিপুরা আকাশকে আটক করা হয়।

তিনি আরো বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি মৃদুল ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। আসামির বিরুদ্ধে রামগড় থানায় মামলা করা হয়েছে।

জয়নিউজ/শ্যামল/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...