কাশিমপুর কারাগার থেকে কয়েদি ‘উধাও’

0

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে এক কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার (৭ আগস্ট) বিকেল সোয়া ৪টার দিকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোনাবাড়ী থানায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

পালিয়ে যাওয়া কয়েদির নাম কয়েদী আবু বকর সিদ্দিক (৩৪)। আবু বকর সাতক্ষীরার জেলার শ্যামনগর উপজেলার আদা চন্ডীপুর গ্রামের তেছের আলী গাইনের ছেলে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটনের কোনাবাড়ী থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক জাহাঙ্গীর আলম থানায় দায়ের করা এজাহারের বরাত দিয়ে জানান, কারাগার-২ এর জেলার মো. বাহারুল ইসলাম একজন কয়েদি পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা বর্ণনা করে কোনাবাড়ী থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগে তিনি জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লকআপের পর থেকে শুক্রবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত ওই কয়েদিকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এএসআই আরও জানান, আবু বকর সিদ্দিকের বিরুদ্ধে ২০০২ সালের মার্চ মাসে সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানায় একটি হত্যা মামলা রুজু হয়। ওই কয়েদিকে ফাঁসির আসামি হিসেবে ২০১১ সালে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। পরে ২০১২ সালের ২৭ জুলাই আদালত তার সাজা সংশোধন করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দেন।

এ ঘটনায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কারাগারের এক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে বলেন, প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিলো ওই কয়েদি কারাগারের কোথাও লুকিয়ে থাকতে পারেন। কারণ এর আগে ২০১৫ সালের ১৩ মে সন্ধ্যায়ও তিনি আত্মগোপন করেছিলেন।

সে সময় নিখোঁজের পরদিন তাকে সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়েছিল। কিন্তু শুক্রবার বিকেল ৪টা পর্যন্ত তার কোনো খোঁজ মেলেনি। তাই ধারণা করা হচ্ছে, সে কৌশলে কারাগার থেকে পালিয়ে গেছে।- জানান তিনি।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...