মৌলভী সৈয়দের পরিবার নিয়ে ষড়যন্ত্রকারীরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী

0

বঙ্গবন্ধু মানে বাংলাদেশ। এই বাংলায় রাজাকার, আলবদর ও শামসদের ঠাঁই হবে না। মৌলভী সৈয়দ মানে এক জ্বলন্ত ইতিহাস। কয়েক মিনিটের বক্তব্যে এই দীর্ঘ ইতিহাস শেষ করা যাবে না। যারা সৈয়দ পরিবারকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী। মুক্তিযোদ্ধার স্বজনের পক্ষে কথা বলায় সাংবাদিক ফারুক আবদুল্লাহর বিরুদ্ধে যে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে তা প্রত্যাহার করা হোক। অন্যথায় আমরা কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবো।

মঙ্গলবার (১১ আগস্ট) বিকেল ৪টায় বাঁশখালী পুঁইছড়ী বহদ্দারহাট এলাকায় মৌলভী সৈয়দ চত্বরে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মৌলভী সৈয়দ আহমেদের ৪৩তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে যুবলীগের সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মাহমুদুল হক এসব কথা বলেন।

এতে প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার (অর্থ) আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, আজকে যারা বাঁশখালীতে কোনো মুক্তিযোদ্ধা নেই ও কোনো মুক্তিযুদ্ধ হয়নি বলে গণমাধ্যমে উল্লেখ করেছেন তারা রাষ্টদ্রোহী অপরাধ করেছেন। এসব কথা তারাই বলতে পারে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী ও অনুপ্রবেশকারী। স্বাধীনতার এতো বছর পর আজকে যারা মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সোনালী ইতিহাসকে বিকৃত করে তারা কারা জাতি জেনে গেছে, তাদেরকে বয়কট করা হবে।

বাঁশখালী থানা কমান্ডার আবুল হাশেম মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আবু সাদাত মোহাম্মদ সায়েম। তিনি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার কারণে বাশঁখালীর স্থানীয় সাংসদকে কুলাঙ্গার উল্লেখ করে তাকে অবাঞ্ছিত করার কর্মসূচি ঘোষণা করার কথা জানান।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য শিল্পী বসাক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি এস এম রিয়াজ উদ্দীন চৌধুরী সুমন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম পাশা, সাবেক সভাপতি ইমরানুল হক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল জামিল চৌধুরী সাকি, শহীদ মৌলভী ছৈয়দ স্মৃতি সংসদের কেন্দ্রীয় সভাপতি আকরাম হোসেন সবুজ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ চট্টগ্রামের সভাপতি পিনাকী দাশ, জসিম চৌধুরী, শওকত হোসেন টিটু, আইন কলেজের ভিপি রায়হানুল হক, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক আব্দুল কাদের রিমন, সাইদুল আমিন ও মিয়া ভাই।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দক্ষিণ জেলা কৃষক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও শহীদ মৌলভী ছৈয়দের বড় ভাইয়ের ছেলে জহির উদ্দিন মো. বাবর।

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...