বার্সাকে গোলবন্যায় ভাসিয়ে সেমিতে বায়ার্ন

0

বার্সেলোনাকে নিয়ে রীতিমতো ছেলে খেলায় মেতে উঠলো বায়ার্ন মিউনিখ। ডোবালেন নিদারুণ লজ্জায়। একটি-দুটি নয়, গুণে গুণে কাতালানদের জালে ৮টি গোল দিল জার্মানির ক্লাবটি। মেসি-সুয়ারেজদের ৮-২ গোলের বন্যায় ভাসিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে উঠেছে বায়ার্ন মিউনিখ।

প্রথমার্ধে ৪-১ গোলে এগিয়ে ছিল বায়ার্ন। দ্বিতীয়ার্ধেও হয়েছে ৪-১ গোল। চ্যাম্পিয়নস লিগের ইতিহাসে নকআউট পর্বের ম্যাচে একমাত্র দল হিসেবে বার্সেলোনা ৮ গোল হজম করল। আর একমাত্র দল হিসেবে প্রতিপক্ষের জালে ৮ গোল দিল বায়ার্ন।

গোলবন্যার ম্যাচে বায়ার্নের হয়ে জোড়া গোল করেছেন থমাস মুলার ও ফিলিপে কৌতিনহো। একটি করে গোল করেছেন ইভান পেরিসিক, সার্জি নাব্রি, জশুয়া খিমিশ ও রবার্ত লেভানডোফস্কি। বার্সেলোনার হয়ে একটি গোল করেছেন লুইস সুয়ারেজ। অপর গোলটি আত্মঘাতী। যেটি করেছেন ডেভিড আলবা।

শুক্রবার (১৪ আগস্ট) রাতে লিসবনে ১০ মিনিটের মধ্যেই দুটি গোল হয়। চতুর্থ মিনিটে থমাস মুলার গোল করে এগিয়ে নেন দলকে। আর সপ্তম মিনিটে ডেভিড আলবা বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই জড়ালে ম্যাচে সমতা আসে। ২০ মিনিটের মাথায় ইভান পেরিসিক গোল করে ব্যবধান করেন ২-১। ২৭ মিনিটে সার্জির গোলে বায়ার্নের লিড হয় ৩-১। আর ৩১ মিনিটে থমাস মুলার জোড়া গোল পূর্ণ করলে বায়ার্ন এগিয়ে যায় ৪-১ ব্যবধানে।

বিরতির পর ৫৭ মিনিটে লুইস সুয়ারেজ গোল করে ফেরার ইঙ্গিত দেন। কিন্তু কিসের কি! বাকি সময়টা বার্সেলোনকে নিয়ে আবারো ছেলে খেলায় মেতে ওঠে বায়ার্ন। ৬৩ মিনিটে জশুয়া খিমিচ গোল করে ব্যবধান করেন ৫-২। ৮২ মিনিটে রবার্ত লেভানডোফস্কি গোল করলে বায়ার্ন এগিয়ে যায় ৬-২ গোলে।

বার্সার সাবেক খেলোয়াড় ফিলিপে কৌতিনহো বদলি হিসেবে নেমে ৮৫ ও ৮৯ মিনিটে দুইবার বল জালে জড়ান। তাতে ৮-২ গোলের লজ্জায় ডুবে মাঠ ছাড়ে বার্সেলোনা। সেমিফাইনালে ম্যানচেস্টার সিটি কিংবা লায়নের মুখোমুখি হবে বায়ার্ন মিউনিখ।

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...