বাফুফে সভাপতি পদে তরফদারের নাম প্রস্তাব

0

বাফুফের পরবর্তী নির্বাচনে তরফদার মোঃ রুহুল আমিনকে সভাপতি হিসেবে সমর্থন দেবেন জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল সংগঠকরা। বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (বিডিডিএফএ) বিশেষ সাধারণ সভায় উঠেছে এই পরিবর্তনের ডাক।

সারা দেশ থেকে সম্মিলিত হওয়া জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের ফুটবল সংগঠকরা দেশের ফুটবলে পরিবর্তন আনার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের নেতৃত্বে বিডিডিএফএ মহাসচিব তরফদার মোঃ রুহুল আমিনকে সমর্থন দেয়ার অঙ্গীকার করেছেন।

শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) কক্সবাজারের হোটেল দি কক্স টুডেতে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের বিশেষ সাধারণ সভা। সভায় সংগঠনের গঠনতন্ত্র অনুমোদিত হয়।

বাংলাদেশ জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের সভাপতিত্বে সভায় বাংলাদেশ ফুটবলের বিরাজমান পারিপার্শ্বিকতায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের ফুটবল সংগঠকরা। তারা বলেন, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও এর সভাপতি তাদের বিগত নির্বাচনী ইশতেহারের অন্যতম প্রতিশ্রুতি- তৃণমূল পর্যায়ে ফুটবলের উন্নয়ন ও জেলা লীগগুলো নিয়ে কাজ করার যে অঙ্গীকার করেছিলেন তার ছিটেফোঁটাও করেননি। বাফুফেতে পরিবর্তন তাই এখন সময়ের দাবি।

আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, কাজী সালাহউদ্দীনকে বিগত নির্বাচনে জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল সমর্থকরা স্বত:স্ফুর্ত সমর্থন দিয়েছিলেন, কিন্তু তিনি সেই সমর্থনের সম্মান রাখেননি। জেলা ও বিভাগীয় ফুটবল সংগঠকরা এমন এক ব্যক্তিকে চায় যিনি তৃণমূলসহ ও অন্যান্য পর্যায়েও হবেন নিবেদিতপ্রাণ। এমন এক ব্যক্তির নামই তরফদার মোঃ রহুল আমিন। আমরা তাকে বাফুফের পরবর্তী নির্বাচনে সভাপতি হিসেব সমর্থন দেব।

তরফদার মোঃ রহুল আমিন তার বক্তব্যে বলেন, আমার হৃদয়জুড়ে রয়েছে ফুটবল, ফুটবলের পারিপার্শ্বিকতা আমাকে বেদনা দেয়, বাংলাদেশ আজ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। অথচ ফুটবল দিন দিন পিছিয়ে যাচ্ছে, এ অবস্থা মেনে নেয়া যায় না। আমার নিজের চাওয়া পাওয়ার কিছু নেই, শুধু ফুটবলের জন্য কাজ করতে চাই।

সভায় ৬০টি জেলা, পাঁচটি বিভাগ, বিভিন্ন জেলার ক্রীড়া সংস্থা, সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ক্রীড়া সংগঠক তরফদার মোঃ রুহুল আমিন সাইফ পাওয়ারটেকের এমডি ও চেয়ারম্যান।

 

জয়নিউজ/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...