বাড়ি ফেরাদের সংবর্ধনা দিল ধলই আইসোলেশন সেন্টার

0

হাটহাজারীর ধলই করোনা আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসাধীন সুস্থ হওয়া সর্বশেষ ছয়জনকে বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ( ২৭ আগস্ট) বিকালে কাটিরহাট মহিলা ডিগ্রি কলেজ ভবনের করোনা আইসোলেশন সেন্টারের অফিস কক্ষে তাদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সাংসদ খাদিজাতুল আনোয়ার সনি।

তিনি বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনা যখন গ্রামগঞ্জে ছড়িয়ে পড়েছে তখন থেকে হাটহাজারীর ধলই এলাকার মানবিক ব্যক্তিরা করোনা আক্রান্ত রোগীদের সেবাদানের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। যা প্রশংসনীয় ও কল্যাণময় কাজ। যতদিন এই মহামারি ভাইরাস থাকবে ততদিন ধলই আইসোলেশন সেন্টার থেকে করোনা রোগীরা চিকিৎসাসেবা পাবেন বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আইসোলেশন সেন্টারের উদ্যোক্তা ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আলী আবরাহা দুলাল।

উদ্যোক্তা হেলাল মাসুদ মজুমদারের সঞ্চালনায় এতে প্রধান বক্তা ছিলেন উপাধ্যক্ষ ছৈয়দুল আলম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইসোলেশন সেন্টারের সমন্বয়কারী ও উদ্যোক্তা ব্যারিস্টার বদরুল আলম চৌধুরী।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন উদ্যোক্তা ও ছাত্রনেতা ইরফান চৌধুরী নয়ন, বিটিভির সংবাদ পাঠিকা ও মানবাধিকার কর্মী শারমিন ফেরদৌসী চৌধুরী, সোহরাব হোসাইন, মহিন উদ্দীন, সাজিদুল করিম পারভেজ, ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক আবুল বাশার ও ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি জামাল উদ্দীন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ৯ জুলাই করোনারোগীদের জন্য ধলই করোনা আইসোলেশন সেন্টার উদ্বোধন করা হয়। প্রায় ১ মাস ২০ দিনের মধ্যে ৩৬ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হন। তারমধ্যে ২৫ জন করোনা পজেটিভ ও ১১ জনের নেগেটিভ পাওয়া যায়। বর্তমানে ২৩ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে আইসোলেশন সেন্টার থেকে ছাড়পত্র গ্রহণ করে। তাদের মধ্যে সর্বশেষ ছয়জনকে বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এ পর্যন্ত ৯শ এর কাছাকাছি রোগীকে আউটডোর চিকিৎসাসেবাও দেওয়া হয়েছে।

জয়নিউজ/তালেব/বিআর
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...