প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানো প্রয়োজন ছিল বিএনপির: তথ্যমন্ত্রী

0

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও ছয় মাস বাড়ানোয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দলটির ধন্যবাদ জানানো প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বাস্তবিক অর্থে বিএনপি ধন্যবাদ জানানোর সংস্কৃতিটা লালন করে না। এজন্য তারা ধন্যবাদ জানাতে ব্যর্থ হয়েছে।

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) নিজ বাসভবনে ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশন (এফটিপিও) নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নজিরবিহীনভাবে একজন শাস্তিপ্রাপ্ত আসামি (খালেদা জিয়া), যিনি ১০ বছর কারাদণ্ডপ্রাপ্ত তাও এতিমের টাকা আত্মসাতের কারণে দুর্নীতির দায়ে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি, তাকে নজিরবিহীনভাবে সিআরপিসি ৪০১ ধারার ক্ষমতা বলে তিনি মুক্তি দিয়েছেন। ছয় মাসের জন্য প্রাথমিকভাবে মুক্তি দেওয়া হয়েছে, পরে আরও ছয় মাস বাড়ানো হয়েছে।

তিনি বলেন, এই প্রথম সিআরপিসির ৪০১ ধারায় যে প্রদত্ত ক্ষমতা সেটা প্রধানমন্ত্রী প্রয়োগ করেছেন। এতে বিএনপির ধন্যবাদ জানানো প্রয়োজন ছিল। কিন্তু বাস্তবিক অর্থে বিএনপি ধন্যবাদ জানানোর সংস্কৃতিটা লালন করে না। এজন্য তারা ধন্যবাদ জানাতে ব্যর্থ হয়েছে।

‘আমার প্রশ্ন বিএনপির কাছে, বেগম খালেদা জিয়া যদি প্রধানমন্ত্রী থাকতেন, এ পরিস্থিতি যদি উল্টোভাবে ভাবি, বেগম খালেদা জিয়া কি শেখ হাসিনার জন্য এ ব্যবস্থা গ্রহণ করতেন? আমি নিশ্চিতভাবে বলতে পারি, করতেন না। কারণ যিনি ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ডকে উপহাস করার জন্য, হত্যাকারীদের উৎসাহিত করার জন্য নিজের জন্মের তারিখটাই বদলে দিয়ে ১৫ আগস্ট কেক কাটেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী তার দরজায় গিয়ে ১৫ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকার পর দরজা খোলেননি, যার জ্ঞাতসারে তার পুত্র ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালায় শেখ হাসিনাকে হত্যা করার জন্য। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব কিছু ভুলে এই মহানুভবতা দেখিয়েছেন, এটি নজিরবিহীন।’- যোগ করেন তথ্যমন্ত্রী।

শিল্পীদের জন্য শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আছে উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, এই কল্যাণ ট্রাস্টে সবাই অ্যাক্সেস করতে পারেন। টেলিভিশন, মঞ্চ, যাত্রার জন্য তো আলাদা শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট করা যাবে না। শিল্পীদের জন্য একটি শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আছে। সেটি পরিচালনার দায়িত্ব হচ্ছে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী চলচ্চিত্র শিল্পীদের জন্য চলচ্চিত্র শিল্পী ট্রাস্ট গঠন করেছেন। এই দুটির মধ্যে কীভাবে টেলিভিশন শিল্পীরাও এর থেকে সহায়তা পায় সেটা নিয়ে আমরা কাজ করছি। যাতে সব শিল্পীই এখান থেকে সহায়তা পান। চিন্তা-ভাবনা করে আমরা একটি সিদ্ধান্তে উপনীত হবো ইনশাআল্লাহ।

জয়নিউজ

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...