তারা তিনজন সাজতেন পুলিশ!

0

সুঠামদেহী তিন যুবকের হাতে ওয়াকিটকি। কোমরে পিস্তল। গায়ে আবার ডিবি পুলিশের জ্যাকেটও!

মাথার চুল কাটা সামরিক বাহিনীর ‘স্টাইলে’। হাব-ভাবে তারা ‘খাঁটি পুলিশ’!

চলছিল ভালোই। ‘পকেট কাটা’ থেকে শুরু করে চাঁদাবাজি, হ্যান্ডকাফ লাগিয়ে হয়রানি- সবই তারা করেছেন পুলিশ পরিচয়ে। শেষতক আসল পুলিশের ফেলা জালে আটকা পড়লেন তারা।

পুলিশ পরিচয়ে নানা অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগে মিরসরাইয়ে ইউসুফ, আসাদ ও আলমগীর নামে ওই তিন যুবককে গ্রেফতার করা হয়। রোববার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টায় উপজেলার বারইয়ার হাট উত্তর মাথা এলাকায় ঢাকামুখী একটি প্রাইভেটকার তল্লাশি চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন বরগুনা জেলার আমতলী থানার মৃত নুর ইসলামের ছেলে ইউসুফ, ঝালকাঠির নলছিটি থানার ইসকান্দার মাস্টারের ছেলে আসাদুজ্জামান খান ও শরীয়তপুরের জাজিরা থানার জব্বার খানের ছেলে আলমগীর। ছদ্মবেশী এই অপরাধীদের সবার বয়স ত্রিশের কোঠায়।

পুলিশ পরিচয়ে বিভিন্ন অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে জোরালগঞ্জ থানা পুলিশ ওই তিন যুবককে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে ১টি ওয়াকিটকি, ১ জোড়া হ্যান্ডকাফ, ২টি ডিবির জ্যাকেট (কোটি), ৩টি মোবাইল, ১টি দেশীয় তৈরি এলজি এবং ৩ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জোরারগঞ্জ থানার এসআই আবেদ আলী জয়নিউজকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। তারা পুলিশ সেজে নিরীহ মানুষকে হয়রানি করার কথা স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

জয়নিউজ/অভি/জুলফিকার

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...