নিম্নচাপে নগরে টানা বর্ষণ, নিম্নাঞ্চলে জলজট

0

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে চট্টগ্রামে থেমে থেমে কখনওবা মুষুলধারে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল টানা বৃষ্টি হচ্ছে।  গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭৪ দশমিক ২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করেছে পতেঙ্গা আবহাওয়া অফিস।

নিম্নচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া বার্তায় আরো বলা হয়, ‘উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন স্থানে অবস্থানরত নিম্নচাপটি আরো উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। নিম্নচাপের কেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটারের মধ্যে ৫০ থেকে ৬০ কিমি বেগে ঝড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, বরগুনা,পটুয়াখালী, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বরিশাল, ভোলা, লক্ষীপুর, নোয়াখালী, ফেনী, চাঁদপুর ও চট্টগ্রাম অঞ্চলসমূহ এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ০৩-০৫ ফুট অধিক উচ্চতার পানিতে নিমজ্জিত হতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ স্থানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

এদিকে টানা বৃষ্টিতে নগরের নিম্নাঞ্চলগুলোতে জমেছে হাঁটু পানি। নগরের আগ্রাবাদ, হালিশহর. চকবাজার. মুরাদপুর. অক্সিজেন, বাকলিয়ার অবস্থা সবচেযে খারাপ। এতে দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন নগরের মানুষ। অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে গেছে।

অন্যদিকে টানা বৃষ্টিতে তাপমাত্রা বেশকিছুটা হ্রাস পেয়েছে। আবহাওয়াভিত্তিক ওয়েবসাইট অ্যাকুওয়েদারের তথ্যমতে, শুক্রবারের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬ ডিগ্রি। যেখানে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১৭ কিমি বেগে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা।

আগামীকাল শনিবারও আবহাওয়া তেমন কোনো হেরফের হওয়ার সম্ভাবনা নেই।

জয়নিউজ/হিমেল/পিডি

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...