খুন করে লুকিয়ে ছিল সেন্টমার্টিনে, র‌্যাব ধরে আনলো চট্টগ্রামে

0

নগরের সাগরিকা এলাকার লেগুনাচালক নাজমুল হক হত্যাকাণ্ডের এজহারভুক্ত আসামি ইমনকে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে আটক করেছে র‌্যাপিড একশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) তাকে গ্রেফতার করা হয়। র‌্যাব-৭ সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. মাহমুদুল হাসান মামুন জানান, লেগুনাচালক নাজমুল হত্যা মামলার পলাতক আসামি ইমনকে সেন্টমার্টিন থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, চারজন মিলে নাজমুল হককে হত্যা করেছিল। মামলার প্রধান আসামি রাজু এবং দ্বিতীয় আসামি ইমনকে আমরা আটক করে থানায় সোপর্দ করছি। বাইশ্যা এবং অপর রাজুকে পুলিশ আটক করে আদালতে সোর্পদ করেছে।

প্রসঙ্গত, ৯ নভেম্বর রাতে রাজু, ইমন, বাইশ্যা ও রাজু মিলে সাগরিকা থেকে মদুনাঘাট আসার জন্য নাজমুলের লেগুনা ভাড়া করেছিল। নাজমুল মদুনাঘাট এসে স্বজনদের জানিয়েছিল তিনি মদুনাঘাট এলাকায় ভাড়া নিয়ে পৌঁছেছেন। এরপর বাসায় না ফেরায় স্বজনরা তার মুঠোফোনে ফোন করে তা বন্ধ পান। পরদিন তারা থানায় অভিযোগ করেন।

ওই অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশের পাশাপাশি নাজমুলের সন্ধানে নামে র‌্যাবও। সন্দেহভাজন রাজু র‌্যাবের হাতে আটক হলে জিজ্ঞাসাবাদে রাজু নাজমুল হত্যাকাণ্ডের আদ্যপ্রাপ্ত স্বীকার করেন র‌্যাবের কাছে। তার দেওয়া তথ্যে ১০ নভেম্বর দুপুর ২টায় হাটহাজারীর শিকারপুর ইউনিয়নের চন্দ্রাবিল থেকে নাজমুলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত লেগুনাচালক নাজমুল হক গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর থানার মো. মঞ্জুরের ছেলে। সে সাগরিকা এলাকায় থাকতেন।অন্যদিকে হত্যায় অভিযুক্ত আসামি ইমন পেশায় রঙ মিস্ত্রি, তার বাড়ি কুমিল্লার লাকসাম উপজেলায়।

 

জয়নিউজ/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...