কক্সবাজারে তিনদিনের উন্নয়ন মেলা শুরু আজ

0

বর্তমান সরকারের উন্নয়ন প্রকল্প জনগণকে জানানোর জন্য তিন দিনব্যাপী চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া গোলচত্বর মাঠে শুরু হচ্ছে।

মেলা উপলক্ষে প্যান্ডেল তৈরির কাজ প্রায় শেষ। এখানে বসবে সরকারি-বেসরকারি নানা অফিস ও সংস্থার স্টল। এসব স্টলে সচিত্র তথ্য প্রদর্শনের ব্যবস্থা থাকবে। সেইসঙ্গে থাকবে জনগণের দোরগোড়ায় কিভাবে সরকার সেবা পৌঁছে দিয়েছে সে তথ্য।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় কক্সবাজার জেলায় উন্নয়ন কর্মকা-ের চিত্র অনেক দীর্ঘ। এখানেই রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর ১৮টি অগ্রাধিকার প্রকল্পসহ প্রায় ৭০টি উন্নয়ন প্রকল্প। তাই এবারের উন্নয়ন মেলাকে একটু ভিন্ন আমেজে জনগণের কাছে উপস্থাপনের চেষ্টা চলছে।

বর্তমান সরকারের আমলে দেশের অন্যান্য স্থানের চেয়ে কক্সবাজারে উন্নয়ন হয়েছে বেশি। বর্তমানে এ জেলায় ৬৯টি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নাধীন। প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারভিত্তিক মেগা বৃহৎ প্রকল্প রয়েছে ১২টি। উল্লিখিত প্রকল্পগুলোতে ব্যয় করা হচ্ছে প্রায় ৩ লাখ কোটি টাকা। এ কারণে দেশের অন্যান্য জেলার তুলনায় এবার কক্সবাজারে আয়োজিত জাতীয় উন্নয়ন মেলা হবে ব্যতিক্রমধর্মী।

জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, সরকারের আন্তরিক প্রচেষ্টায় বিগত বছরগুলোতে কক্সবাজার জেলায় যেসব উন্নয়ন কর্মকা- হয়েছে, মেলায় তার সঠিক তথ্যচিত্র জনগণের কাছে উপস্থাপনে চলছে প্রচেষ্টা। এবারের মেলায় সব সরকারি বিভাগ, বাহিনী, সংস্থা, দপ্তর, পরিদপ্তরের স্টল থাকছে। যে কোনো মানুষ মেলা প্রাঙ্গণে গিয়ে জানতে পারবে সরকারি কোন দপ্তরের কোন ধরনের সেবা প্রদানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে।

জেলা প্রশাসক আরো জানান, এবারের মেলার থিম সং রচনা করা হয়েছে কক্সবাজার জেলার ইতিহাস, ঐতিহ্য, দর্শনীয় স্থান এবং চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহকে প্রাধান্য দিয়ে। এই গানে উঠে এসেছে উন্নয়নের জয়যাত্রার পাশাপাশি সাগর ও পাহাড়বেষ্টিত এই জনপদের মানুষের কথা। শুধু মেলা প্রাঙ্গণের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না এবারের উন্নয়ন মেলা। ডিজিটাল ভ্যানের মাধ্যমে শহরে প্রদর্শন করা হবে কক্সবাজারে সরকারের উন্নয়ন কর্মকা- এবং মেগা প্রকল্পসমূহের চিত্র। এছাড়া উন্নয়নের খবর জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে জেলার ৭১টি ইউনিয়নে বড় এলইডি স্ক্রিনের সাহায্যে উন্নয়নচিত্র দেখানো হবে ।

মেলায় দেশের বিখ্যাত ব্যান্ড সোলস, স্বনামধন্য শিল্পী ফকির শাহাবুদ্দিন, বাউল শিল্পী রিংকু, প্রতীক হাসান প্রমুখ পরিবেশন করবেন গান। স্কুল-কলেজ এবং বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য থাকবে রিয়েলিটি শো, কুইজ, রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা।

</h5>জয়নিউজ/আরসি</h5>

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...