স্বাধীনতার জন্য এত লোকের প্রাণ বিসর্জনের নজির পৃথিবীতে আর নেই: ড. অনুপম সেন

0

বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী, একুশে পদকপ্রাপ্ত শিক্ষাবিদ ও প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন বলেছেন, স্বাধীনতা ও বিজয়ের জন্য মুক্তিযুদ্ধে তিরিশ লাখ বাঙালিকে প্রাণ দিতে হয়েছে। স্বাধীনতার জন্য এত লোকের প্রাণ বিসর্জনের নজির পৃথিবীতে আর নেই। এদেশে পশ্চিম পাকিস্তানের শোষণের ইতিহাস, স্বাধীনতার জন্য এদেশের মানুষের ত্যাগ-তিতিক্ষার ইতিবৃত্ত নতুন প্রজন্মের জানা প্রয়োজন। তাহলে তাদের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত হবে, দেশের স্বার্থে কাজ করতে তারা অনুপ্রাণিত হবে।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) নগরের জিইসির প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর প্রাক্কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ইংরেজদের পরে এদেশকে পরাধীন করে পশ্চিম পাকিস্তান। ১৯৪৭-৭১ পর্যন্ত প্রায় ২৩ বছর পশ্চিম পাকিস্তান বাংলাদেশকে নির্মমভাবে শোষণ করেছে। এদেশের অর্থে পশ্চিম পাকিস্তান ও সেখানকার জনগণের জীবন-মানের আমূল পরিবর্তন ঘটেছে; সেখানে নির্মিত হয়েছে তারবেলা বাঁধ; গড়ে উঠেছে করাচি, রাওয়ালপিন্ডি ও ইসলামাবাদ; পুষ্ট হয়েছে শিল্পখাত, সেবাখাত ও কৃষিখাত। এভাবে শোষণের শিকার হয়ে বাংলাদেশ দরিদ্র থেকে দরিদ্রতর হয়েছে। এই শোষণ থেকে মুক্তির জন্য  ১৯৬৬ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছয় দফা ঘোষণা করেন। তারই পথ ধরে সূচিত হয় মুক্তিযুদ্ধ, অর্জিত হয় বিজয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার প্রফেসর একেএম তফজল হক, ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম, ব্যবসা শিক্ষা অনুষদের প্রফেসর অমল ভূষণ নাগ,  প্রকৌশল ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ, ব্যবসাশিক্ষা অনুষদের সহকারী ডিন এম. মঈনুল হক, গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইফতেখার মনির, আইন বিভাগের চেয়ারম্যান তানজিনা আলম চৌধুরী প্রমুখ।

জয়নিউজ/পিডি

 

আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...