সাগরের চেয়ে বিশাল তুমি— বঙ্গবন্ধুর বালি ভাস্কর্য উন্মোচন

0

‘সাগরের চেয়ে বিশাল তুমি’- এ স্লোগান নিয়ে কক্সবাজারে সমুদ্রসৈকতে উন্মোচন করা হয়েছে বঙ্গবন্ধুর বালি ভাস্কর্য। বলা হচ্ছে এটি বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর প্রথম এবং বড় বালির ভাস্কর্য।

বিজয়ের এইদিনে এই ভাস্কর্য উপভোগ করছেন ভ্রমণে আসা পর্যটকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। সবার জন্য এই বালি ভাস্কর্য উন্মুক্ত থাকবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১২টায় কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে স্থাপিত এই বালি ভাস্কর্য উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন।

জাতীয় সংগীত পরিবেশনের পর জাতির জনকের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ১০০টি কবুতর উড়িয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর বালি ভাস্কর্যের’ আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এরপর দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়।

একইসময়ে জাতীয় পতাকাবাহী হেলিকপ্টার উড়ে যায়, আর সৈকতের ঢেউতে পতাকাবাহী যানের নৌ–মহড়া চলে। সৈকতের বালিয়াড়িতে মোটরযানও পতাকা নিয়ে ঘুরে বেড়ায়।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ব্র্যান্ডিং কক্সবাজারের সার্বিক সহায়তায় ভাস্কর্যটি নির্মিত হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ভাস্কর্য বিভাগের ১০ জন ভাষ্কর শিক্ষার্থী এটি নির্মাণে অংশ নেন। গত ৮ ডিসেম্বর থেকে বুধবার সকাল ৯টা পর্যন্ত দিনে-রাতে পরিশ্রম করে ভাস্কর্যটির নির্মাণকাজ শেষ করেছেন। এটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে প্রায় ৮ লাখ টাকা।

সাংবাদিক জাহেদ সরওয়ার সোহেলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কক্সবাজার সদর-রামু আসনের সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল হোসেন, ব্র্যান্ডিং কক্সবাজারের সমন্বয়ক ইশতিয়াক আহমেদ জয় ও ভাস্কর্য শিল্পী কামরুল হাসান শিপন।

নির্মাণ শিল্পীরা জানিয়েছেন, বঙ্গবন্ধুর বালি ভাস্কর্য জাতির জনকের সর্বপ্রথম ও সর্ববৃহৎ কোনো ভাস্কর্য। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে নির্মিত হয়েছে ১০ ফুট উচ্চতার একটি ফ্রি-স্ট্যান্ডিং আবক্ষ ভাষ্কর্য এবং আরেকটি শোয়ানো অবস্থায় রিলিপ ভাস্কর্য। ভাস্কর্যগুলো নির্মাণে শিল্পীরা শুধুমাত্র সৈকতের বালি ও পানি ব্যবহার করেছেন।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙার পর প্রতিবাদে মুখর হয়েছে বাংলাদেশের জনগণ। ব্যতিক্রম নয় পর্যটন শহর কক্সবাজারও।

স্বাধীনতাবিরোধী সেসব চক্রের বিরুদ্ধে অন্যরকম প্রতিবাদের বার্তা পৌঁছে দিতে যাচ্ছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন ও ‘ব্র্যান্ডিং কক্সবাজার’ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এ জন্য প্রতিবাদ স্বরূপ বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্রসৈকতের বালিয়াড়িতে নির্মাণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য’।

জয়নিউজ/শামীম/এসআই
আরও পড়ুন
লোড হচ্ছে...